নয়াদিল্লি: সরকারি হাসপাতালে ডাক্তারদের নিরাপত্তার দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে দায়ের হয় জনস্বার্থ মামলা৷ মঙ্গলবার হবে ওই মামলার শুনানি৷ জানিয়ে দিল দেশের শীর্ষ আদালত৷

দেশের নানা প্রান্তেই সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরা মাঝে মধ্যেই হামলার শিকার হন৷ নিরাপত্তার অভাব বোধে ব্যাহত হয় পরিষেবা৷ অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সরকারি হাসপাতালে বিশেষ নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করুক প্রশাসন৷ এই মর্মেই সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেন আইনজীবী অলোক শ্রীবাস্তব৷

গত সোমবার রাতেই এনআরএসে রুগির পরিবারের সঙ্গে জুনিয়র ডাক্তারদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে৷ অভিযোগ, চিকিৎসার গাফিলতিতেই মৃত্য হয় বৃদ্ধের৷ প্রতিবাদে, হাসপাতালে এসে জুনিয়র ডাক্তারদের মারধর করা হয়৷ তাতেই মাথায় গভীর আঘাত পান জুনিয়র চিকিৎসক পরিবহ মুখোপাধ্যায়৷ আক্রান্ত হন আরও বেশ কয়েকজন৷

এরপরই গত মঙ্গলবার সকাল থেকে সরকারি হাসপাতালে কর্মবিরতির ডাক দেন জুনিয়র ডাক্তাররা৷ অচল হয়ে পড়ে চিকিৎসা পরিষেবা৷ সরকারি পদক্ষেপের দাবি তুলে আন্দোলনে সামিল হয় দেশব্যাপী চিকিৎসকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন আইএমএ সহ অন্যান্য সংগঠনগুলিও৷ আজ তাদের ডাকা কর্মবিরতির জেরে ব্যাহত দেশের চিকিৎসা পরিষেবা৷

ইতিমধ্যেই এনআরএসের ঘটনাকে উদাহরণ হিসাবে তুলে ধরে চিকিৎসকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছেও আর্জি জানিয়েছে আইএমএ। কড়া আইনী পথ খুঁজে বার করার আবেদন করা হয়েছে৷ হাসপাতাল চত্বরকে ‘সেফ জোন’ হিসাবে চিহ্নিত করারও দাবি উঠেছে চিকিৎসকদের সংগঠনের তরফে৷