নয়াদিল্লি: সুপ্রিম কোর্টে জোর ধাক্কা খেলেন রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের চেয়ারম্যান অনিল আম্বানি৷ আদালত অবমাননা মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলেন তিনি৷ এরিকশন ইন্ডিয়ার ৪৫০ কোটি টাকা বকেয়া মেটানো নিয়ে এই মামলা৷

শীর্ষ আদালত এদিন স্পষ্টতই জানিয়ে দেয় তিন মাসের মধ্যে ৪৫০ কোটি টাকা মেটাতে হবে অনিল আম্বানিকে৷ এই সময়ের মধ্যে টাকা ফেরাতে না পারলে তাঁকে জেলে যেতে হবে বলে জানান বিচারপতি নরিম্যান ও বিচারপতির বিনীত সরনের ডিভিশন বেঞ্চ৷ অনিল আম্বানি ছাড়াও রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের আরও দুই কর্তা সতীশ শেঠ ও রিলায়েন্স ইনফ্রাটেল চেয়ারপার্সন ছায়া ভিরানীও দোষী সাব্যস্ত হন৷ প্রত্যেককে এক কোটি টাকা জরিমানা দিতে হবে বলে জানায় সর্বোচ্চ আদালত৷ একমাসের মধ্যে এই জরিমানার টাকা দিতে হবে৷ নাহলে জেলে যেতে হবে তাদের৷

২০১৪ সালে এরিকসন ইন্ডিয়া অনিল আম্বানির সংস্থার সঙ্গে সাত বছরের একটি চুক্তি করে৷ কিন্তু চুক্তি অনুযায়ী টাকা না মেটানোয় ঋণে জর্জরিত সংস্থার বিরুদ্ধে ন্যাশনাল কোম্পানি ল অ্যাপেলট ট্রাইবুনালে মামলা ঠুকে দেয় এরিকশন৷ তা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট অবধি৷

১৩ ফেব্রুয়ারি এই মামলার শুনানির সময় রাফায়েল নিয়ে অনিল আম্বানিকে খোঁচা মারে সুইডিশ টেলিকম জায়েন্ট এরিকশন৷ আদালতকে তারা জানায়, রাফায়েল যুদ্ধবিমান চুক্তির জন্য বিপুল অংকের টাকা বিনিয়োগ করতে পারে৷ অথচ কোম্পনির ৫৫০ কোটি টাকা দিতে পারছেন না অনিল৷ জবাবে আদালতকে অনিলের কৌঁসুলি জানান, সম্পত্তি বিক্রি করতে না পারার জন্য টাকা শোধ করতে পারা যায়নি৷