নয়াদিল্লি: করোনা আতঙ্ক এবার দেশের সুপ্রিম কোর্টেও। জানানো হয়েছে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে ব্যক্তিগত শুনানির কাজ। এমনটাই জানিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। যার জেরে মনে করা হচ্ছে কোভিড ভাইরাসের আতঙ্কে বাকিদের মতই সন্ত্রস্ত ভারতও। পাশপাশি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ব্যক্তিগত চেম্বার রাখতেও।

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এসএ বোবডে জানিয়েছেন দেশে ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। আর সেই কারণে আইনজীবীদের চেম্বার বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর জানিয়েছেন যাতে আইনজীবীরা নিজেদের মামলা বাড়ি থেকে দেখতে পারেন এবং উপস্থাপন করতে পারেন তার বিষয়ে চেষ্টা চলছে। ইতিমধ্যে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে চারশো। তার পাশাপাশি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারাও গিয়েছেন বেশ কয়েকজন। পরিস্থিতি যাতে আরো সঙ্গিন না হয় সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রধান বিচারপতির তরফ থেকে জানা গিয়েছে আইনজীবীদের বিশেষ লিঙ্ক দেওয়া হবে দ্রুতই। তারই সাহায্য বাড়ি থেকেও মামলার কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন তারা। কিভাবে এই লিঙ্ক গুলি কাজ করবে তা জানিয়ে দেওয়া হবে দ্রুত। আগেই বলা হয়েছিল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জরুরি বিষয়ের শুনানিতে মান্যতা দেবে আদালত। তার ফলে নিজের বাড়ি থেকে শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন আইনজীবীরা। এছাড়াও সকল আইনজীবীদের দেওয়া ই পাস বাতিল করা হয়েছে।

বিশ্বজুড়ে দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে এই ভাইরাস। সব থেকে জটিল পরিস্থিতি ইতালিতে। সেদেশে রীতিমত মহামারীর আকার ধারন করেছে এই ভাইরাস। এছাড়া অন্যান্য দেশেও ক্রমেই বাড়ছে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের হারও। এছাড়াও এই ভাইরাসের জেরে ক্রমে ধস নামছে শেয়ার বাজারেও। অর্থাৎ বিশ্বজুড়ে কার্যত অশনী সঙ্কেতের বার্তা দিচ্ছে এই ভাইরাস। ভারতেও ইতিমধ্যে চারশোর বেশী মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তার মাঝে সুপ্রীম কোর্টের তরফ থেকে নেওয়া এই সিদ্ধান্ত যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকেই।