পানাজি: সানি লিওনের কন্ডোমের বিজ্ঞাপন দেখে সবাই লজ্জায় পড়ে যায়। তাই সরকারি বাসে এই বিজ্ঞাপন বন্ধ করা হোক। এমনটাই দাবি জানালেন গোয়ার এক বিধায়ক। মঙ্গলবারই গোয়া বিধানসভায় গতকাল এই দাবি তুলেছিলেন সেন্ট.অ্যান্ড্রের কংগ্রেস বিধায়ক ফ্রান্সিস সিলভেইরা।

সিলভেইরা এদিন বিধানসভায় তাঁর বক্তব্য পেশের সময় শুরুতে স্পিকার প্রমোদ সাবন্তের কাছে জানতে চান, বিধানসভায় আদও কন্ডোম শব্দটি উচ্চারণ করা যাবে কিনা? তারপর তিনি বলেন, এই ধরনের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে গোয়াবাসীদের কাছে কী বার্তা যাচ্ছে? ছাত্র-ছাত্রী থেকে সাধারণ আমজনতা প্রত্যেকে বাস ব্যবহার করেন গোয়াতে। সেখানে এভাবে খোলাখুলি কন্ডোমের বিজ্ঞাপন থাকলে, সমাজের কাছে কী বার্তা পৌঁছছে, প্রশ্ন কংগ্রেস বিধায়কের।

উল্লেখ্য, গোয়ার রাজ্য সরকার পরিচালিত বাসে সানি লিওনের এই কন্ডোমের বিজ্ঞাপন দেখা যায়। জানা গিয়েছে ওই কন্ডোম প্রস্তুতকারক সংস্থার সঙ্গে একটি চুক্তি রয়েছে গোয়া ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের। সেই জন্যেই এই বিজ্ঞাপন চালানো হয়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।