বারাকপুর: নোয়াপাড়ার বিজেপি বিধায়ক তথা গারুলিয়া পুরসভার পুরপ্রধান সুনীল সিংয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে চলেছেন তৃণমূল। ইতিমধ্যে এই বিষয়ে ঘুঁটি সাজিয়ে ফেলেছেন উত্তর ২৪ পরগনার গারুলিয়া পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলররা। যা নিয়ে রীতিমত চাপে পড়তে চলেছে বিজেপি। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিকমহল।

গারুলিয়া পুরসভার মোট ২১ টি ওয়ার্ড রয়েছে। বর্তমানে এই পুরসভা বিজেপি দ্বারা পরিচালিত। পুরসভার পুরপ্রধানের দায়িত্বে রয়েছেন সদ্য তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং। তৃণমূল কংগ্রেসের পরিচালনাধীন ছিল এই গারুলীয়া পুরসভা। তবে শেষ লোকসভা ভোটে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে জয়ী হোন অর্জুন সিং। এরপর অর্জুন বাবুর হাত ধরে নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং গরুলিয়া পুরসভার ১২ জন কাউন্সিলরকে সঙ্গে নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেন।

ফলে গারুলিয়া পুরসভার ক্ষমতা চলে যায় বিজেপির হাতে। কিন্তু সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে দল ছুট কাউন্সিলররা ফের ঘরে ফিরতে শুরু করেছে। যা নিয়ে রীতিমত চাপে পড়েছে বিজেপি। ইতিমধ্যেই গরুলিয়া পুরসভার ৪ তৃণমূল কাউন্সিলর বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরেছেন। তৃণমূলে ফিরে গেছেন কাউন্সিলর অসীম বর্মন, রবীন দাস, দীপা সিং। শুক্রবার বিজেপিকে ধাক্কা দিয়ে তৃণমূলে ফিরে গিয়েছেন সুনীল সিংয়ের দাদা চান্দ্রভান সিং। এমনকি ইনি অর্জুন সিংয়েরও আত্মীয়। বর্তমানে যা পরিস্থিতি তাতে সংখ্যালঘু হয়ে পড়েছে নোয়াপাড়া বিধানসভা সুনীল সিং নেতৃত্বাধীন বিজেপি শাসিত গারুলিয়া পুরো বোর্ড।

উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব জানিয়েছে চলতি মাসেই সুনীল সিং এর বিরুদ্ধে অনাস্থা আনবেন গারুলিয়া পুরসভার কাউন্সিলররা। উত্তর ২৪ পরগনার জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন,”গারুলিয়া পুরসভা তৃণমূলের ছিল আর তৃণমূলের থাকবে। বোর্ড আমাদের হাতেই আসবে।” যদিও এই বিষয়ে সুনীল সিংয়ের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।