আবু ধাবি: এএফসি এশিয়ান কাপের প্রথম ম্যাচে থাইলান্ডের বিরুদ্ধে ৪-১ গোলের দুরন্ত জয় ভারতের৷ এই জয়ে টুর্নামেন্টের ইতিহাসে ভারত যেমন বিরল নজির গড়ল, ঠিক তেমনই জোড়া গোল করে বেশ কয়েকটি রেকর্ড গড়লেন সুনীল ছেত্রী৷ সব থেকে উল্লেখযোগ্য হল বিষয় হল থাইল্যান্ডের বিরুদ্ধে দু’টি গোল করে ছেত্রী টপকে গেলেন আর্জেন্তাইন তারকা লিওনেল মেসিকে৷ এলএম টেনকে টপকে তিনি এখন তাড়া করছেন পর্তুগীজ সুপার স্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে৷

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে জাতীয় দলের হয়ে গোল করার নিরিখে আর্জেন্তাইন মহাতারকা লিওনেল মেসির সঙ্গে একাসনে ছিলেন ছেত্রী৷ ১০৪ ম্যাচে তাঁর গোল ছিল ৬৫৷ সেখানে আর্জেন্তিনার জার্সিতে মেসি ১২৮ ম্যাচে করেছেন ৬৫টি গোল৷ দেশের হয়ে ১০৫তম আন্তর্জাতিক ম্যাচে জোড়া গোল করে মেসিকে ছাপিয়ে যান সুনীল৷ এই মুহূর্তে তাঁর আন্তর্জাতিক গোল সংখ্যা ৬৭৷ অবশ্য ম্যাচ প্রতি গোলের গড়ে মেসিকে আগেই টপকে গিয়েছিলেন ভারতীয় তারকা৷

আরও পড়ুন: ‘ভারতের মেসি নয়, সুনীল ছেত্রী হয়েই থাকতে চাই’

বর্তমান ফুটবলারদের মধ্যে ছেত্রীর সামনে রয়েছেন কেবল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো৷ পর্তুগালের হয়ে ১৫৪ ম্যাচে ৮৫টি গোল করেছেন সিআর সেভেন৷ অর্থাৎ এখনও অবসর নেননি এমন ফুটবলারদের মধ্যে জাতীয় দলের হয়ে গোল করার নিরিখে এক নম্বরে রয়েছেন রোনাল্ডো৷ দুইয়ে ছেত্রী ও তিনে রয়েছেন মেসি৷

যদিও সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক গোল করার সর্বকালীন রেকর্ড থেকে বহু দূরে রয়েছেন ছেত্রী৷ ১৯৯৩ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত  ১৩ বছরের দীর্ঘ আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে ১৪৯ ম্যাচে রেকর্ড ১০৯টি গোল করেছেন ইরানের আলি দায়েই৷ রোনাল্ডো রয়েছেন ঠিক তাঁর পিছনেই৷ ৮৯ ম্যাচে ৮৪ গোল করে তিন নম্বরে রয়েছেন কিংবদন্তি পুসকাস, যাঁকে ক’দিন আগেই ছাপিয়ে গিয়েছেন রোনাল্ডো৷ এই নিরিখে ছেত্রী রয়েছে তালিকার ১৭ নম্বরে৷ মেসি দাঁড়িয়ে ১৯’এ৷

আরও পড়ুন: থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে এএফসি এশিয়ান কাপে ইতিহাস ভারতের

থাইল্যান্ডের বিরুদ্ধে জোড়া গোল করা ছেত্রী একমাত্র ভারতীয়, যিনি এশিয়ান কাপের কোনও ম্যাচে একাধিক গোল করেন৷ ছেত্রীর আগে কোনও ভারতীয়ই এশিয়ান কাপের ইতিহাসে দু’টি গোল করতে পারেননি৷ সেদিক থেকে টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোল করা ভারতীয় ফুটবলারে পরিণত হলেন সুনীল৷

এছাড়া ভারতের জার্সিতে সর্বাধিক ম্যাচ খেলার দৌড়ে এই মুহূর্তে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ছেত্রী৷ বাইচুং ভুটিয়া ভারতের হয়ে রেকর্ড ১০৭টি ম্যাচ খেলেছেন৷ আর দু’টি ম্যাচ খেললেই সুনীল ধরে ফেলবেন বাইচুংকে৷ চোট না পেলে এশিয়ান কাপেই এই নিরিখে নতুন রেকর্ড ছুঁতে বা ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়তে পারেন ছেত্রী৷