নয়াদিল্লি: এবারের লোকসভা ভোটে ভোপাল কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর ২৬/১১ মুম্বই হামলায় শহিদ হেমন্ত কারকারে সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করছিলেন৷ তারপরে এবার সেই সুরে কথা বললেন লোকসভা স্পিকার সুমিত্রা মহাজন৷ তাঁর মতে , জঙ্গিদের সঙ্গে যুদ্ধে এটিএস প্রধানের মৃত্যু হলেও একজন পুলিশ অফিসার হিসেবে তাঁর ভূমিকা প্রশ্নের উর্ধ্বে নয়৷

সুমিত্রা মহাজনের কথায়, ‘‘কারকারের বিষয়ে দুটি দিক রয়েছে , এক তাঁর মৃত্যু হয়েছিল জঙ্গিদের সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে কিন্তু তাঁর সম্পর্কে অন্য দিকটাও সমান গুরুত্বপূর্ণ৷ তিনি যখন এটিএস-এর প্রধান তখনই বলেছিলাম, তিনি ও কংগ্রেস নেতা দিগবিজয় সিং বন্ধু এবং তিনি ওই কংগ্রেস নেতা নির্দেশেই কাজ করতেন ৷ যখন আমি ইন্দোরের সাংসদ তখন মালেগাঁও মামলার অভিযুক্ত করে আমার কেন্দ্রের চার পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল৷ সেই সময় আমাদের এক কর্মীর ছেলে দিলীপ পতিদারকে গ্রেফতার করে এটিএস-এর হেফাজতে রাখা হয়৷ তারপর সে আর বাড়ি ফেরেনি৷ এটিএস দাবি করে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল৷’’

এতদিন পর্যন্ত বাড়ি না ফেরায় সুমিত্রা মহাজন প্রশ্ন তুনেছেন , ‘‘ তাহলে সে গেল কোথায়? তাঁকে কোথায় ছাড়া হয়েছিল? আজ পর্যন্ত দিলীপ পতিদারের কোথাও কোনও চিহ্ন মেলেনি তারমানে কি হচ্ছে না এটিএস তাঁকে খুন করেছে? একজন মা কি তাঁর ছেলের কথা জানতে চাইতে পারে না?’’

প্রজ্ঞা দাবি, করেছিলেন তাঁরই অভিশাপে কারকারের মৃত্যু হয়েছে৷ প্রথমে সেই কথায় সুমিত্রা মহাজন সহমত পোষণ না করলেও পরে বলছেন, প্রজ্ঞা একজম সাধ্বী আমি একজন সাধারন নারী একজন মা আমি এমন করতে পারি না৷ আমি ওনার ভাষায় কথা বলতে পারি না৷’’

এদিকে দিগ্বিজয় সিং টুইট করে জানিয়েছেন, সুমিত্রা মহাজন অশোকচক্র জেতা শহিদ হেমন্তর কারকারের সহযোগী বলায় আমি গর্বিত৷ পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, তিনি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে গর্বিত কারণ তিনি সাহস দেখাতে পেরেছিলেন বজরং দল এবং সিমিকে নিষিদ্ধ করার৷