নিউ ইয়র্ক: কিংবদন্তি রজার ফেডেরারের বিরুদ্ধে কেরিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ম্যাচ৷ স্বাভাবিকভাবেই কোর্টে নামার আগে উত্তেজিত ছিলেন সুমিত নাগাল৷ সেই ঘোর কাটতে না কাটতে ২২ বছর বয়সি ভারতীয় তরুণ তৃতীয় বাছাই তারকার বিরুদ্ধে জিতে নেন প্রথম সেট৷ শেষমেশ প্রথম রাউন্ডেই হারতে হলেও সুমিত নাগালের ইউএস অভিযান স্মরণীয় হয়ে রইল সন্দেহ নেই৷

আরও পড়ুন: সিন্ধু-প্রণীতের জন্য আর্থিক পুরস্কার ঘোষণা ব্যাডমিন্টন অ্যাসোসিয়েশনের

যোগ্যতা অর্জন পর্বের বাধা পেরিয়ে মূলপর্বে জায়গা করে নিলেও ফেডেরারের বিরুদ্ধে সুমিত অঘটন ঘটাবেন, এমনটা আশা করা সম্ভব ছিল না৷ সুতরাং প্রথম রাউন্ডে ভারতীয় তারুণের হার প্রত্যাশিত ছিল৷ বরং চূড়ান্ত অপ্রত্যাশিত বিষয় হল, প্রথম সেটেই রজারকে ৬-৪ সেটে সুমিতের পরাজিত করা৷ ফেডেরার অবশ্য প্রাথমিক ধাক্কা সামলে পরের তিনটি সেট জিতে নেন ৬-১, ৬-২, ৬-৪ গেমে৷ তবে ২ ঘণ্টা ২৯ মিনিটের এই চার সেটের লড়াই নাগালকে ভবিষ্যতের তারকা হয়ে ওঠার রসদ জুগিয়ে গেল সন্দেহ নেই৷

আরও পড়ুন: লিচকে আজীবন বিনামূল্যে চশমা, স্টোকসের আবেদনে রাজি স্পেকসেভারস

নাগালই প্রথম ভারতীয় যিনি ফেডেরারের বিরুদ্ধে একটি সেট জিততে সক্ষম হন৷ এর আগে রোহন বোপান্না একবার ও সোমদেব দেববর্মণ দু’বার ফেডেরারের মুখোমুখি হয়েছেন৷ দু’জনের কেউই একটিও সেট জিততে পারেননি৷ হেরেছেন স্ট্রেট সেটে৷ ২০০৬ সালে হ্যাল ওপেনে বোপান্না ৬-৭, ২-৬ সেটে পরাজিত হয়েছিলেন রজারের কাছে৷ ২০১১ সালে দুবাইয়ে সোমদেব প্রথমবারের সাক্ষাতে ৩-৬, ৩-৬ সেটে হার মেনেছিলেন৷ দ্বিতীয়বার ২০১৩ সালের ফরাসি ওপেনে ফেডেক্সের কাছে সোমদেব পরাস্ত হন ২-৬, ১-৬, ১-৬ সেটে৷

আরও পড়ুন: আপত্তিকর শব্দে টেস্ট প্রেমের কথা জানালেন স্টোকস

মেনস সিঙ্গলসে ভারতের অপর প্রতিনিধি প্রজনেশ গুণেশ্বরণও প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিয়েছেন৷ বিশ্বর পাঁচ নম্বর রাশিয়ান তারকা দানিল মেদভেদেভ ৬-৪, ৬-১, ৬-২ স্ট্রেট সেটে হরিয়ে দেন গুণেশ্বরণকে৷