কলকাতা: বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার হলেন ঝাড়গ্রামের তৃণমূল বিধায়ক সুকুমার হাঁসদা৷ শুক্রবার সর্ব সম্মতিক্রমেই তিনি পেয়েছেন ডেপুটি স্পিকারের পদ৷ কংগ্রেস, সিপিএম ও বিজেপি সহ সব বিরোধী দলের বিধায়করা এক যোগেই সুকুমারবাবুকে সমর্থন করেছেন ডেপুটি স্পিকার পদে৷

আরও পড়ুন: জনগণের ভোটে আবারো ক্ষমতায় আসবে আওয়ামী লীগ

এদিন বিধাযনসভায় বিরোধী দলনেতা আবদুল মান্নান থেকে বিজেপির দিলীপ ঘোষ, বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী নয়া ডেপুটি স্পিকারের প্রশংসা করেন৷ বিজেপি বিধায়ক ও রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এদিন কিছুটা স্বভাব বিরুদ্ধভাবেই শাসক দলের এই বিধায়কের স্তুতি করেন৷ একধাপ এগিয়ে তিনি বলেন, ‘জঙ্গলমহলের মানুষ সুকুমারবাবু এই পদের যোগ্য দাবিদার ছিলেন৷ রাজ্যের পিছিয়ে পড়া আদিবাসী মানুষরা এর ফলে সম্মানিত হলেন৷’

আরও পড়ুন: আশঙ্কাজনক প্রবীণ অভিনেতা কাদের খান

বিধানসভার বিরোদী দলনেতা কংগ্রেসের আবদুল মান্নান বলেন, ‘সুকুমার হাঁসদাকে ডেপুটি স্পিকার করে আদিবাসী সমাজের প্রতি সুবিচার করলেন মুখ্যমন্ত্রী৷’

২০১১ থেকেই ঝাড়গ্রামের বিধায়ক ডঃ সুকুমার হাঁসদা৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম সরকারে তিনি ছিলেন পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রী৷ ২০১৬ সালে অবশ্য জঙ্গলমহলের এই চিকিৎসক নেতাকে আর মন্ত্রী করেননি তৃণমূল সুপ্রিমো৷ তাঁকে সংগঠনের কাজে লাগান হয় রাজ্যের শাসক দলের তরফে৷ দল মত নির্বিশেষে সমস্ত স্তরের মানুষের সঙ্গে এই মৃতভাষি মানুষটির সুসম্পর্ক রয়েছে৷ সেই বিষয়টিকেই বিধানসভা পরিচালনার কাজে লাগাতে চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

আরও পড়ুন: সাতদিনেও একশো কোটির ক্লাবে নাম লেখাতে পারল না ‘জিরো’

তবে সুকুমার হাঁসদাকে জেপুটি স্পিকার করার পিছনে রাজনৈতিক কারণই দেখছেন বিশ্লেষকরা৷ অনেকেই তৃণমূল সুপ্রিমোর এই পদক্ষেপকে মাস্টার স্ট্রোক বলেও মনে করছেন৷ জঙ্গলমহলে এবছর পঞ্চায়েতে ভালো ফল হয়নি শাসক দলের৷ মাথা তুলেছে গেরুয়া বাহিনী৷ আদিবাসীদের স্বপ্ন দেখাচ্ছে পদ্ম শিবির৷ বিজেপির রমরমা রুখতে তাই আদিবাসী এলাকায় উন্ননে জোর দিয়েছে রাজ্য সরকার৷ খারাপ ফলের জন্য ভর্ৎসনা করা হয় তৃণমূলের নেতাদের৷ মন্ত্রীত্ব কেড়ে নেওয়া হয় চূড়ামণি মাহাতোর৷

আরও পড়ুন: বুলন্দশহরে ইনস্পেক্টর খুনে ধৃত মূল অভিযুক্ত

এরপর আদিবাসী কোনও নেতাকে বিধানসভার সর্বোচ্চ স্তরের কাজে এনে জঙ্গলমহলকেই বার্তা দিতে চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এক্ষেত্রে সুকুমারবাবুই তাঁর বিশ্বস্ত সৈনিক৷ ফলে এই চিকিৎসক নেতাকে ডেপুটি স্পিকার পদে বসানো শাসক শিবিরের মাস্টার স্ট্রোক বলেই মনে করা হচ্ছে৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV