স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বিধানসভায় দাঁড়িয়ে তাঁর পূর্বতনের কাজ নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু। তিনি দাবি করলেন, প্রাক্তন দমকল মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সময় ফায়ার অডিট রিপোর্টে গলদ ছিল।

সোমবার বিধানসভায় দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, সারা রাজ্যে এখনও পর্যন্ত 1400 ফায়ার অডিট হয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে ৫০ শতাংশের ক্ষেত্রেই গলদ রয়েছে। আবার নতুন করে তাদের অডিট করতে বলা হয়েছে। এদিন সুজিত বসু ঘুরিয়ে এটাই বলেছেন যে, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সময় ফায়ার অডিট ঠিকমতো হয়নি।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে জেতার পর বেহালা পূর্বের বিধায়ক তথা তৎকালীন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে দমকল, পরিবেশ ও আবাসন, এই তিনটি দফতরের মন্ত্রী করেন। সেইসময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন যে, এই তিনটি দফতরের সঙ্গে পুরসভার কাজের যোগ রয়েছে। মেয়রের ‘কাজের সুবিধা’র জন্যই শোভন চট্টোপাধ্যায়কে তিনি তিনটি দফতর দিয়েছিলেন।

বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়ার আগে স্নেহের কাননের কাজে খুশিই ছিলেন মমতা। কিন্তু সূত্রের খবর, পরের দিকে শোভনের কাজে অসন্তুষ্টই হচ্ছিলেন তিনি। এমনকি এও শোনা গিয়েছিল যে, বিধানসভায় শোভনকে ডেকে মমতা তাঁকে কড়া কথাও শুনিয়েছিলেন। এদিন সুজিতের কথা শোনার পর তৃণমূলের এক বিধায়কের কথায়, “নেত্রী সেইসময় বুঝতে পারছিলেন, শোভনের কাজে গাফিলতি হচ্ছে। সে কারণেই শোভনকে ডেকে সতর্ক করেছিলেন। শেষের দিকেই ওর এমন ভুলভ্রান্তি হচ্ছিল।”

শাসক দল যাই সাফাই দিক না কেন বাম-কংগ্রেসের বক্তব্য তৃণমূলের তৎকালীন মন্ত্রীর এই পারফরমেন্স তাদের হাতেই অস্ত্র তুলে দিল। এব্যাপারে এখনও মুখ খোলেনি বিজেপি।