কলকাতা: করোনা আক্রান্ত হয়েছেন শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্টের প্রধান মহন্ত নিত্যগোপাল দাস। অযোধ্যায় রাম মন্দিরের ভূমি পুজোয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে একই মঞ্চে ছিলেন তিনি। নিত্যগোপাল দাসের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরকে ঊদ্ধৃত করে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে টুইটে বিঁধলেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী।

নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্টের প্রধান মহন্ত নিত্যগোপাল দাস। তাঁর সঙ্গে অযোধ্যায় ভূমি পুজোর অনুষ্ঠানে একইমঞ্চে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই কারণেই স্বাস্থ্য বিধি মেনে মোদীরও আইসোলেশনে থাকা উচিত কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী।

তারও আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। শাহ হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার দিনকয়েক আদেই তাঁর সঙ্গেও বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই কারণেই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে অন্যদের মতোই নরেন্দ্র মোদীরও আইসোলেশনে যাওয়া উচিত কিনা তা নিয়ে টুইটে বিঁধেছেন সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী।

বৃহস্পতিবার টুইটে সুজন চক্রবর্তী লিখেছেন, ‘রামমন্দির ভিত পুজোর আগেই অমিত শাহ হাসপাতালে। এবার ট্রাষ্টের প্রধান করোনা পজিটিভ। বিপদ বাড়ছে! প্রশ্ন দুটো। দুই ক্ষেত্রেই সঙ্গী ছিলেন প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং। তিনি কি আইনের ঊর্ধে নাকি আইসোলেশনে যাবেন?’

এরই পাশাপাশি বিজেপির একাধিক নেতাকে কটাক্ষ করেছেন সুজন। দিন কয়েক আগেই এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী করোনা তাড়াতে ‘ভাবিজি পাঁপড়’ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। পরে সেই মন্ত্রীই করোনা আক্রান্ত হন। এছাড়াও করোনার সংক্রমণ এড়াতে এর আগেও বিজেপি, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের একাধিক নেতা গোমূত্র পানের পরামর্শ দিয়েছিলেন।

টুইটে সেই প্রসঙ্গ তুলে গেরুয়া শিবিরকে খএাঁচা দিতে ছাড়েননি সুজন। তিনি লিখছেন, ‘সাধুজীর চিকিৎসা কোন পথে? ভাবিজী পাপড়, গোমূত্র, রাম-ভরসা নাকি অত্যাধুনিক হাসপাতাল?’ গোটা দেশেই বাড়ছে করোনার সংক্রমণ।

প্রতিদিন হাজার-হাজার মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডোমিটারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৪ লক্ষ ৫৯ হাজার ৬১৩। দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৮ হাজার ১৪৪।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও