স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করল এক যুবক৷ যুবকের পকেট থেকে মেলে একটি সুইসাইড নোট৷ মৃতের নাম সুমন মণ্ডল (২০)৷ ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমান শহরের লাকুর্ডি শরৎপল্লি এলাকায়৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, মৃত সুমন মণ্ডল ও তার পরিবার শরৎপল্লি এলাকার বহুদিনের বাসিন্দা৷ তবে তিন বছর আগে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেওয়ার পরই পড়াশোনা ছেড়ে দেয় সুমন৷ এরপর থেকে দিনমজুরের কাজ করেই সংসার চালাত ওই যুবক৷ বাড়িতে সদস্য বলতে ছিল মাত্র তিন জন৷ সুমন নিজে ও তার বাবা-মা৷ অভাব অনটনের মধ্যে থাকলেও কোনওরকম অশান্তির আঁচ ছিল না তাদের সংসারে৷

তবে বেশ কিছুদিন ধরে বর্ধমানের একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় সুমনের৷ বর্ধমান শহরের কালিন্দি পাড়ার বাসিন্দা ওই যুবতী৷ তবে এই বিষয় নিয়ে সুমনদের পরিবারে কোনও রকম অশান্তি ছিল কি না তা জানা নেই এলাকাবাসীর৷ বুধবার সকালে ওই এলাকায় গোয়ালা দুধ দিতে এলে গাছে সুমনের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পায়৷

এই ঘটনা জানাজানি হতেই শরৎপল্লি এলাকায় প্রবল চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়৷ এলাকাবাসী তড়িঘড়ি সুমনকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ তবে হাসপাতালের চিকিৎসক সুমনকে মৃত বলে ঘোষণা করে৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বর্ধমান থানার পুলিশ৷ পুলিশ মৃতের পকেট থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করে৷ যাতে লেখা ছিল ‘তুমি আমাকে ভালবাসলে না, তাই আমি চলে গেলাম৷’