কাবুল: শনিবারের রাতে রক্তাক্ত হল কাবুল৷ একটি বিয়েবাড়িতে ভয়াবহ আত্মঘাতী বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৬৩ জনের৷ আহত ১৮৩ জনেরও বেশি৷ আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে বিয়েবাড়ির মাজেই অতিথি সেজে ঢুকে পড়ে ওই আত্মঘাতী জঙ্গি৷

ইতিমধ্যেই তালিবান জঙ্গি গোষ্ঠী এই হামলার দায় স্বীকার করেছে৷ মৃতদের মধ্যে অনেক মহিলা ও শিশু রয়েছে বলে খবর৷ টোলো নিউজ সূত্রে জানা গিয়েছে শনিবারের ওই বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলেই বেশ কয়েকজন মারা যান৷ বাকিদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়৷

তবে হাসপাতালে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৬৩জনের৷ আফগান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র নুসরত রহিমি জানিয়েছেন সরকারের কাছে ৬৩ জনেরই মৃত্যুর খবর রয়েছে৷ প্রাথমিক ভাবে ৪০ জনের মৃত্যুর খবর এসেছিল৷ বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠান চলছিল পুলিশ ডিস্ট্রিক্ট ৬ বা পিডি৬ এলাকায়৷ স্থানীয় সময় রাত ১০.৪০ নাগাদ বিস্ফোরণটি ঘটে৷

আরও পড়ুন : ১৯ বছরের রেকর্ড ভেঙে ৫০ হাজার ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যায় বাংলাদেশ

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, বিয়েবাড়ির হলটি অতিথিদের ভীড়ে ভরতি ছিল৷ ফলে ক্ষয়ক্ষতির সংখ্যা বেশি৷ এর আগে, গত ৭ অগস্ট সকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয় কাবুলে৷ আহত হয় প্রায় ৯৫ জন৷ গোটা এলাকা ধোঁয়ায় ভরে যায়৷ কাছেপিঠের দোকানগুলির কাচ ভেঙে টুকরে টুকরো হয়ে যায়৷ জানা যায়, এদিন সকাল ৯টা নাগাদ কাবুলে পুলিশ হেডকোয়ার্টারে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৯৫ জনের আহত হয়৷

গত ৩১ জুলাই, হেরাট-কান্দাহার হাইওয়েতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে৷ এতে ৩৪ জনের প্রাণ যায়৷ ৩১ জুলাই বুধবার হেরাট-কান্দাহার হাইওয়েতে ভয়ঙ্কর এই বিস্ফোরণ ঘটে৷ ঘটনাস্থলেই অনেকে নিহত হন৷ আহতের সংখ্যাও অনেক৷