মুম্বই: এখনও রুপোলি জগতে পা রাখেননি। কিন্তু জন্মলগ্ন থেকে উপলব্ধি করেছেন এই গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের খুঁটিনাটি। আর তাই অভিনয় শুরুর আগেই বহু আলোচিত সুহানা খান। তাঁর প্রথম পরিচয় শাহরুখ খানের কন্যা। কিন্তু ইতিমধ্যেই নিজের পরিচিতি তৈরির দৌড় শুরু করে দিয়েছেন তিনি। ইনস্টাগ্রামে তাঁর একের পরে এক ছবি ঝড় তুলছে।

ছোট থেকেই সুহানার ইচ্ছে অভিনেত্রী হওয়ার। একথা নিজেই একাধিক বার বলেছেন শাহরুখ। আর তার জন্য সুহানা যথাযথ প্রশিক্ষণও নিচ্ছেন। তাঁর রক্তেও যে অভিনয় রয়েছে তা নিজের হাইস্কুলের অনুষ্ঠানে প্রমাণ করেছেন কিং খানের কন্যা।

তবে অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি যে ফ্যাশনেও সচেতন তা তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া ঘাঁটলেই বোঝা যায়। একের পর এক ছবি পোস্ট করে নেট দুনিয়ায় পারদ চড়ান সুহানা। কখনও গাউন অথবা কখনও ক্রপ টপের সঙ্গে ট্রাউজার, সবটুকুই তিনি আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে ক্যারি করেন।

কিছুদিন আগেই দুবাই বেড়াতে গিয়েছিলেন সুহানা। সেখান থেকেও বেশ কিছু ছবি ভক্তদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন। কিন্তু প্রথম থেকে এত মসৃণ ছিল না তাঁর পথ। কিং খানের মেয়ে হয়েও বহু ট্রোলিং এর মুখে পড়তে হয়েছে। গায়ের রংয়ের জন্যও খারাপ কথা শুনতে হয়েছে নেটিজেনদের থেকে।

কিছুদিন আগে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে সুহানা লিখছেন, চারপাশে এই বিষয়ে অনেক কিছুই ঘটছে আর এটা বন্ধ হওয়া উচিত। এটা শুধু আমার বিষয়ে নয়। যে সমস্ত অল্প বয়সি ছেলে মেয়েরা কোনও কারণ ছাড়াই আমার মতো হীনমন্য়তা নিয়ে বড় হয়েছে তাদের জন্যও। এখানে কিছু কমেন্ট রাখা থাকল। প্রাপ্রবয়স্ক পুরুষ ও মহিলারা আমায় ১২ বছর বয়স থেকে কুৎসিত বলে এসেছে।

তিনি আরও বলেন, আরও দুঃখের বিষয় হল এরা প্রত্যেকে ভারতীয় যার জন্য অধিকাংশেরই স্বাভাবিকভাবেই গায়ের রং বাদামি। সেই বাদামিরও বিভিন্ন শেড রয়েছে। নিজেদের দেশের মানুষকে ঘৃণা করা মানে আপনি নিজেই নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন।

সুহানা বলেন তাঁর কোনও আফসোস সেই। তিনি বলছেন, সোশ্যাল মিডিয়া বা আপনার পরিবার যদি আপনাকে এটা শেখায় যে ৫ফুট ৭ইঞ্চি উচ্চতা ও গায়ের রং ফর্সা না হলে আপনি সুন্দর নন তাহল আমি সত্যিই দুঃখিত। আমি জানি আমার উচ্চতা ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি এবং আমি ব্রাউন এবং আমি এই নিএ খুবই খুশি। আপনারও খুশি হওয়াই উচিত।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।