স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: দিনের পর দিন স্কুল যেতে অসুবিধা হয় পড়ুয়াদের৷ বার বার বলা সত্ত্বেও হয়নি কোনও কাজ৷ তাই একপ্রকার বাধ্য হয়ে রাস্তা অবরোধে সামিল হল পড়ুয়ারা৷ বালি বোঝাই কয়েকশো লরি, ডাম্পার, ট্র্যাক্টর যাতায়াত করায় প্রায়ই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে পড়ুয়ারা৷ তাই স্কুলের সময়ে বালির সমস্ত ধরণের গাড়ি যাতায়াত বন্ধ রাখার দাবিতে বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমানের মেমারি ১ ব্লকের পাল্লারোড বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পড়ুয়া ও অভিভাবকরা পাল্লা রোডে রাস্তা অবরোধে সামিল হয়েছে৷

ছাত্রছাত্রী থেকে অভিভাবকদের অভিযোগ, মেমারি পাল্লারোডে প্রতিদিন কয়েকশো লরি, ডাম্পার, ট্রাক্টর দামোদর নদ থেকে বালি তুলে এই সড়ক পথে যাতায়াত করে। এরফলে বিপদ হাতে নিয়েই তাদের যাতায়াত করতে হচ্ছে। অনেক সময়ই দুর্ঘটনারও শিকার হচ্ছে পড়ুয়ারা।

এদিন অবরোধকারীরা স্কুল শুরুর সময়ের ও ছুটির সময়ে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪.৩০ পর্যন্ত বালির গাড়ি বন্ধ রাখার দাবি জানান। একইসঙ্গে অযথা হর্ণ ব্যবহার বন্ধ করা, গাড়ি আস্তে চলাচল করা, রাস্তার ধারের জমা বালি সরানো, বালি ত্রিপল চাপা দিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবিও জানান তারা।

সকাল থেকে এই অবরোধের জেরে বালি খাদের মালিক, স্থানীয় গাড়ি মালিক, দলুইবাজার ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান পার্থ সারথী খান ও পালশিট ফাঁড়ির অফিসার নাড়ুগোপাল মন্ডল ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। অবরোধকারী ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের সঙ্গে তাঁরা আলোচনায় বসেন। রাস্তার ধার থেকে বালি সরিয়ে নেওয়া ও স্কুলের সময়ের গাড়ি বন্ধ রাখবেন বলে তাঁরা প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর অবরোধ ওঠে।