লখনউ: দারুণ ব্যাপার। অদ্ভূত এক আবিষ্কার করলেন উত্তরপ্রদেশের এক ছাত্র। যোগীরাজ্যের প্রয়াগরাজ এলাকার মোতি লাল নেহেরু ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ছাত্ররা এমন একটি ইলেকট্রিক বাইক তৈরি করে ফেললেন, যা কিনা মদ্যপ অবস্থায় চালানো যাবে না। ওই ছাত্রের এই আবিষ্কার ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে।

এই বিশেষ বাইকের নাম রাখা হয়েছে হাইব্রিড ইলেকট্রিক গারুন। এই বাইকটিকে চালকের নিরাপত্তা ও পরিবেশ- উভয় দিক থেকেই ৫ স্টার দেওয়ার মতো। হাইব্রিড ইলেকট্রিক গারুন-এর চালক যাতে সুরক্ষিত থাকে, সেই কারণে এই বাইকে লাগানো হয়েছে একটি বিশেষ সেন্সর।

যদি কোনও ব্যক্তি মদ্যপানের পর এই বাইক চালানোর চেষ্টা করেন, তবে তিনি তা পারবেন না। এমনকি চালানো তো দূরের কথা মদ্যপানের পর এই বাইক স্টার্টও করা যাবে না। মোতি লাল নেহেরু ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ১৩ জন ছাত্র মিলে এই বাইকটি তৈরি করেছে। বাইকের ফিচার মাত্রাতিরিক্ত আধুনিক হলেও মাত্র ২৫ হাজার টাকা খরচ করেই এই বিশেষ বাইকটি বানিয়ে ফেলেছে ওই ছাত্ররা। এই বাইকে মোট দু’জন ব্যক্তি সওয়ার হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

ওই কলেজের ডিজাইন এবং ইনোভেশন সেন্টার-এর কো-অর্ডিনেটর শিভেশ শর্মা জানিয়েছেন, এই বাইকে একটি দারুণ অ্যাকোহল সেন্সর লাগানো হয়েছে, যে কারণে এই বাইকটি অত্যন্ত নিরাপদ এবং ‘স্পেশাল’ হয়ে উঠেছে।

এই বাইকের বিশেষত্ব রয়েছে এর ইলেকট্রনিক সার্কিটে। যে কারণে, যদি কোনও ব্যক্তি মদ্যপানের পর এই বাইক চালাতে যায় তবে বাইক স্টার্ট হবে না। এই বিশে ফিচারের কারণেই এই বাইক হয়ে উঠেছে অন্য বাইকের থেকে অনেক আলাদা। পাশাপাশি নিরাপত্তার দিক বিবেচনা করলেও এই বাইক চালকের জন্য হয়ে উঠেছে অন্যতম সুরক্ষিত।