লাহোর: মহিলাদের ঋতুস্রাব হওয়াটা স্বাভাবিক বিষয়। এর মধ্যে নোংরা বা খারাপ কিছু নেই। তবুও সমাজে বিষয়টি নিয়ে অনেক লুকোছাপা আছে। মহিলা শরীরের খুব সাধারণ বিষয়টিকে ‘নোংরা’ হিসেবে দেখা হয় এবং ‘গোপন’ করে রাখা হয়। স্যানিটারি ন্যাপকিন কেনার সময় কালো বা খয়েরি ব্যাগে ভরে দেয় দোকানি।

আরও পড়ুন :

ন্যাপকিন ব্যবহারে যে ৮টি মারাত্মক ভুল করে থাকেন মহিলারা!

চটের স্যানিটারি ন্যাপকিন বানাল আইআইটি-র বিজ্ঞানীরা

চিরাচরিত এই নিয়মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন এবার পাকিস্তানের লাহোরের বেকনহাউস ন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল পড়ুয়া। একটি দেওয়ালে ২৫টি প্যাড টাঙিয়ে তুলে ধরেছেন ঋতুস্রাবের নানাবিধ দিক। ঋতুস্রাব নিয়ে মানুষের মনে কেন অদ্ভুত বা ভ্রান্ত ধারণা তৈরি হয়েছে তাও লেখা রয়েছে ওই দেওয়ালে টাঙানো প্যাডগুলিতে। মাভেরা, ইমান, মেহসাম, নূর ফতিমা, আসাদ এবং শেরবাজের মতো পাক পড়ুয়ারা উদ্যত হয়েছেন সমাজের এই ট্যাবু ভাঙতে।

আরও পড়ুন :

শহরে ভেন্ডিং মেশিনে বেরোবে স্যানিটারি ন্যাপকিন

৮০% ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয় না স্যানিটারি ন্যাপকিন

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ