ভারতে লঞ্চ করা হচ্ছে Lava Z2 Max স্মার্টফোন। আসন্ন স্মার্টফোনটি vanilla Lava Z2 উত্তরসূরি হিসেবে লঞ্চ করা হচ্ছে, যেটি বছরের শুরুতে ভারতে লঞ্চ করা হয়েছিল।

একটি বড়ো ডিসপ্লে এবং বৃহৎ ব্যাটারি বাজারে আসতে পারে সংস্থার ফোনটি, যা অনলাইন ক্লাস চলাকালীন শিক্ষার্থীদের সহায়তা করবে ই-লার্নিংয়ে। এর পাশাপাশি Lava Z2 Max ৪ জি সংযোগের সমর্থনের সঙ্গে মিলবে একটি MediaTek SoC পরিষেবা।

এটিতে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপের পাশাপাশি সেলফি শ্যুটারের জন্য একটি খাঁজ রয়েছে। ফোনটিতে একটি অধীক ৬,০০০ মেগাহার্জ ব্যাটারি সঙ্গে চালনা করার জন্য থাকবে অ্যান্ড্রয়েড ১০ (গো সংস্করণ)।

আসন্ন Lava Z2 Max একটি মাত্র বিকল্পে বাজারে প্রকাশ করা হবে। ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি স্টোরেজের দাম সংস্থার তরফে রাখা হবে ৭,৭৯৯ টাকা।

স্ট্রোকড ব্লু এবং একটি স্ট্রোকড সায়ান রঙের বিকল্পে লাভা ওয়েবসাইট, ই-কমার্স সাইট এবং ফ্লিপকার্টে মিলবে ফোনটি গ্রাহকদের। দুটি নেনো সিমের Lava Z2 Max স্মার্টফোনটি চলবে অ্যান্ড্রয়েড ১০ (গো সংস্করণ)।

অন্যান্য বৈশিষ্ট্যের মধ্যে রয়েছে একটি ৭ ইঞ্চি HD+ (720×1,640 pixels) ডিসপ্লের সঙ্গে 258ppi pixel ডেনসিটি, 20.5:9 অ্যাসপেক্ট রেশিও এবং ডিসপ্লে সুরক্ষার জন্য Gorilla Glass 3 ব্যবস্থা। হুডের নিচে থাকবে একটি quad core MediaTek Helio SoC এর সঙ্গে 2GB DDR4X RAM এবং 32GB স্টোরেজ।

অতিরিক্ত 256GB স্টোরেজের জন্য মিলবে একটি মাইক্রো এসডি কার্ডের ব্যবস্থা।

ক্যামেরার জন্য গ্রাহকদের Lava Z2 Max মিলবে একটি ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপের ব্যবস্থা, যার মধ্যে যুক্ত থাকবে একটি 13-megapixel primary সেন্সারের সঙ্গে একটি f/1.85 লেন্স এবং একটি 2-megapixel secondary সেন্সার।

সেলফি এবং ভাল ভিডিও জন্য ফন্টে মিলবে একটি 8-megapixel সেন্সারের সঙ্গে f/2.0 লেন্সের পরিষেবা।

Lava Z2 Max সংযোগের জন্য থাকবে ওয়াই-ফাই, ৪ জি ভোল্টটি, ব্লুটুথ ভি ৫, জিপিএস, একটি ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাক এবং একটি ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট এর পরিষেবা।

৬০০০ মেগাহার্জের একটি অধিক ক্ষমতার ব্যাটারি পরিষেবা থাকবে, যা সংস্থার কথা অনুযায়ী ৩ ঘন্টা ৪৭ মিনিটে সম্পূর্ণ চার্জ হতে সক্ষম।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.