UPSC

নিউ দিল্লি: করোনা ভাইরাসের ফলে দেশ ব্যাপী যে প্যানডেমিক (Pandemic) পরিস্থিতি চলছে তার কথা মাথায় রেখে গত শনিবার ছাত্রছাত্রীদের তরফ থেকে ইউপিএসসি (UPSC) পরীক্ষায় বসার জন্য অতিরিক্ত সুযোগের দাবি জানানো হয়েছে। যদি ইউপিএসসি এই দাবি মেনে নেয় তবে যেসব পরীক্ষার্থীদের কাছে ২০২০ সালের ইউপিএসসি পরীক্ষা শেষ সুযোগ ছিল, তারা পুনরায় পরীক্ষায় বসার সুযোগ পাবেন। ২০২০ সালে যে ১০,৫৬,৮৩৫ জন পরীক্ষার্থী ইউপিএসসি পরীক্ষার জন্য আবেদন করেছিলেন তার মধ্যে ০.৯৭ % পরীক্ষার্থীদের ওটাই ছিল পরীক্ষায় বসার শেষ সুযোগ। অনেক ইউপিএসসি পরীক্ষার্থী আবার কোভিড যোদ্ধা হিসেবে সামনে থেকে দাড়িয়ে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন গত বছর লকডাউনের সময় থেকে।

গত বছর করোনা ভাইরাসের প্রকোপে ইউপিএসসি প্রিলিমিনারী পরীক্ষা মে মাসের পরিবর্তে ৪ অক্টোবর নেওয়া হয়। সিভিল সার্ভিস (Civil services) পরীক্ষার্থীরা এই বছর তাদের যাবতীয় সমস্যার কথা জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একটি পিটিশন ফাইল করেছেন। পিটিশনে পরীক্ষায় বসার অতিরিক্ত সুযোগ চাওয়ার কারণ বর্ণনা করা হয়েছে। কয়েক দফা শুনানির পর কেন্দ্রীয় সরকার এক শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষায় বসার সুযোগের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ৫ ফেব্রুয়ারি সরকার সুপ্রিম কোর্ট কে জানায় যে যাঁরা ৩২ বছরের বয়স সীমা অতিক্রম করেনি এবং যারা ইতিমধ্যেই ৬ বার পরীক্ষায় বসার সুযোগ পেয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে মিলবে সুযোগ।

পরীক্ষার্থীদের এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে এবং পরীক্ষা দিতে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। যার কারণে তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে টুইটারে #UPSCExtraAttempt2021 হ্যাশট্যাগ দিয়ে তাদের দাবির বহি প্রকাশ শুরু হয়েছে যা ইতিমধ্যেই টুইটারে ট্রেন্ডিন। সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা দেশের সব থেকে কঠিনতম পরীক্ষা যার জন্য কঠোর পরিশ্রম, অধ্যাবসায় ও শারীরিক সক্ষমতার প্রয়োজন। কিন্তু করোনার ফলে অনেকেরই সেই ক্ষেত্রে বাঁধার সম্মুখীন হয়েছেন।দেশে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে করোনা ভাইরাস। ক্রমেই বেড়ে চলেছে সংক্রমণের সংখ্যা। দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা কমলেও বাড়ছে সংক্রমন। দেশব্যাপী অক্সিজেনের অভাব, ওষুধের সংকট, আইসিইউ বেডের আকাল বাড়িয়েছে সঙ্কট। এই অবস্থায় পিছিয়ে গেলো ইউপিএসসি (UPSC) সিভিল সার্ভিস (civil services) পরীক্ষা। পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল জুন মাসের ২৭ তারিখ। দিন পরিবর্তিত হয়ে আগামী অক্টোবরের ১০ তারিখ হবে পরীক্ষা। এমনটাই জানিয়েছে ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশন বা ইউপিএসসি। প্রত্যেক বছর ইউপিএসসি পরীক্ষা হয় তিনটি পর্যায়ে – প্রিলিমস, মেনস ও ইন্টারভিউ। এই পরীক্ষার মাধ্যমে ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস (IAS), ইন্ডিয়ান ফরেন সার্ভিস (IFS), ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিস (IPS) সহ যাবতীয় অফিসার এই পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ করা হয়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.