স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: অতর্কিতে স্কুল বন্ধের নোটিশ দেখে শুক্রবার সকালে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন হাওড়ার বিনোদিনী বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। পরে ঘটনার জবাবদিহি চাইতে জেলা স্কুলশিক্ষা দফতর ঘেরাও করেন তাঁরা৷ সেখানে স্কুলের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন ছাত্রীরা৷খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশবাহিনী। পরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন স্কুলশিক্ষা দফতরের কর্তারা৷ এরপরই বিক্ষোভ ওঠে৷

হাওড়ার জয়নারায়ণ সাঁতরা লেনের অক্ষয় শিক্ষায়তন স্কুলবাড়িতে চলে বিনোদিনী বালিকা বিদ্যালয়টি৷ সূত্রের খবর, বেশ কিছু সমস্যার জেরে মাধ্যমিক পর্যায়ের এই স্কুলটি আমচকা বন্ধ করা হয়েছে৷ক্রমে বাংলামাধ্যমের ছাত্রীর সংখ্যা কমতে থাকায় বিনোদিনী স্কুল কর্তৃপক্ষ বাংলার পাশাপাশি হিন্দি মাধ্যমেও শিক্ষাদান শুরু করেন। একসময়ে হিন্দি মাধ্যমের ছাত্রী সংখ্যা বাংলা মাধ্যমের চাইতেও বেশি হয়৷

বর্তমানে স্কুলের বাংলা মাধ্যমে সাকুল্যে ছাত্রী সংখ্যা ১২৷ অন্যদিকে হিন্দি মাধ্যমে ছাত্রী সংখ্যা প্রায় ৩৫০জন৷ স্বভাবতই স্কুল কর্তৃপক্ষ বাংলা মাধ্যম তুলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন৷ স্কুলের তরফে শিক্ষা দফতরে এবিষয়ে আবেদন জানানো হলে শিক্ষা দফতর তা মঞ্জুরও করে৷যদিও হাওড়া অক্ষয় শিক্ষায়তন স্কুলের অধীনে থাকা বিনোদিনী বালিকা বিদ্যাভবনকে সরাসরি সেই অনুমতি দিতে অস্বীকার করে। ফলে বেকায়দায় পড়ে যায় বিনোদিনী কর্তৃপক্ষ।

বাধ্য হয়ে তাঁরা ফের বাংলা মাধ্যম চালু করার আবেদন জানালে সমস্যায় পড়ে শিক্ষা দফতর। মাত্র ১২জন ছাত্রী থাকায় বাংলা মাধ্যমে কিভাবে অনুমতি দেওয়া যায় সেটাই সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। উভয় সঙ্কটের জেরে কর্তৃপক্ষ সাময়িকভাবে স্কুলটিকে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন৷ এদিন সকালে স্কুল বন্ধের নোটিশ দেখে স্বভাবতই উত্তেজিত হয়ে ওঠে ছাত্রীরা। ঘটনার জেরে সোমবার কর্তৃপক্ষের তলব করেছে স্কুল শিক্ষা দফতর। এদিন ছাত্রীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে বিজেপি যুব মোর্চাও৷ সমংগঠনের তরফে ওমপ্রকাশ সিং বলেন, ‘‘ডিআইকে বলেছি অবিলম্বে ছাত্রীদের সমস্যা মেটাতে উদ্যোগ নিতে হবে। না হলে আণরা ছাত্রীদের নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে যাব৷’’