স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ২৯ ডিসেম্বরের পর থেকে বন্ধ হয়ে যাবে সব চ্যানেল। এমনই খবর সম্প্রতি চাঞ্চল্য তৈরি করেছে দেশ জুড়ে। টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা TRAI-এর নয়া নির্দেশিকার বিরুদ্ধে ২৪ ঘন্টা ধর্মঘটে যাওয়ার কথা ঘোষনা করেছিল বিশ্ব বাংলা কেবিল টিভি অপারেটর৷

এরপর বুধবার TRAI সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে ২৯ ডিসেম্বরের পর চ্যানেলগুলি ব্ল্যাক আউট হয়ে যাবে বলে যে তথ্য প্রচার হচ্ছে, তা ভুল। টিভি চ্যানেলের সার্ভিসে কোনও ব্যাঘাত ঘটবে না বলেই জানানো হয়েছে। অন্যদিকে কেবিল টিভি অপারেটরাও তাদের ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছে৷

বৃহস্পতিবার বিশ্ব বাংলা কেবিল টিভি অপারেটর ইউনিয়নের সভাপতি শংকর মন্ডল জানান, ২৯ ডিসেম্বর সারা বাংলা জুড়ে ২৪ ঘন্টার যে ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছিল তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হল৷ টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা TRAI এর যে নতুন নিয়ম চালু হওয়ার কথা ছিল ২৯ ডিসেম্বর থেকে তা তারা আপাতত স্থগিত রেখেছে বলে আমাদের জানিয়েছে৷ এরপরই আমরা আমাদের ধর্মঘট তুলে নেই৷

ফলে ওই দিন বাংলায় যে লক্ষ লক্ষ টিভি বন্ধ হয়ে যেত৷ কেবিল টিভি অপারেটররা তাদের পরিষেবা চালু রাখার জন্য টিভি চ্যানেলগুলো চালু থাকবে৷ তবে ২৯ ডিসেম্বর কলকাতা রানী রাসমণি রোডে সকল কেবল অপারেটরদের আসার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন তিনি৷ সেখানে তাদের পরবর্তী পরিকল্পনার রূপরেখা তৈরি হবে৷

ফাইল ছবি

কিছুদিন আগে সল্টলেকে বিশ্ববাংলা ক্যাবল অপারেটর সংগঠন সাংবাদিক সম্মেলন করেছিলেন৷ এবং সংগঠনের সভাপতি শংকর মন্ডল জানিয়েছিলেন,কেন্দ্রীয় সরকারের ট্রাই-এর নতুন আইনের ফলে বাংলার কেবল অপারেটরা সমস্যায় পড়বেন৷

ফলে নতুন আইন সংশোধন না হলে আগামী ২৯ ডিসেম্বর ২৪ ঘন্টা ১৭ হাজারেরও বেশি কেবল অপারেটররা কর্মবিরতির পালন করবেন৷ স্বভাবতই ওইদিন সারা বাংলা জুড়ে কেবল পরিষেবা ব্যহত হবে৷ বিশ্ববাংলাসহ বেশ কয়েকটি কেবল অপারেটর সংগঠন এই আন্দোলনে সামিল হবে৷ কারন ট্রাই-এর নতুন আইনের ফলে কেবল চ্যানেলের দাম এক ধাক্কায় অনেকটা বেড়ে যাবে৷ ফলে টিভিতে পছন্দের চ্যানেল দেখার জন্য গ্রাহকদের গুনতে হবে প্রায় দ্বিগুন টাকা৷

১৩০টাকা ও জিএসটি নিয়ে মোট ১৫৪ টাকার বিনিময়ে সমস্ত গ্রাহক ১০০টি ফ্রি টু এয়ার চ্যানেল দেখতে পারলেও সেখানে তাদের প্রিয় চ্যানেল থাকবে না৷ তার জন্য গ্রাহকদের গুনতে হবে বাড়তি টাকা৷ পছন্দের প্রতি চ্যানেলের জন্য দিতে হবে আলাদা আলাদা টাকা৷ তাতে প্রতি চ্যানেলের সর্বোচ্চ দাম হতে পারে ১৯ টাকা ও জিএসটি৷

বুধবার টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা TRAI-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে ২৯ ডিসেম্বরের পর চ্যানেলগুলি ব্ল্যাক আউট হয়ে যাবে বলে যে তথ্য প্রচার হচ্ছে, তা ভুল। টিভি চ্যানেলের সার্ভিসে কোনও ব্যাঘাত ঘটবে না বলেই জানানো হয়েছে। সম্প্রতি টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অব ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে কেবল চ্যানেল এবং বিশেষত পে-চ্যানেল গুলির জন্য নির্দিষ্ট মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

TRAI-এর এই নয়া নির্দেশিকার উদ্দেশ্য, কেবল অপারেটরদের দৌরাত্ম্য বন্ধ করা এবং গ্রাহকদের কাছ থেকে ইচ্ছেমত টাকা আদায় করতে না পারা। আরও বিশেষভাবে বলতে গেলে, ট্রাই-এর এই নির্দেশ অনুসারে গ্রাহকরা নিজেদের পছন্দমত চ্যানেল দেখবেন নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ে।