ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: একদিকে মহারাষ্ট্রে ফুঁসছে নিসর্গ, অন্যদিকে কেরলে ঢুকে পড়েছে বর্ষা। এবার দিল্লিতে স্বস্তি দিতে শুরু হচ্ছে ঝড়-বৃষ্টি।

প্রবল গরমে পুড়ছে রাজধানী। কয়েকদিন আগেই তাপপ্রবাহ বয়ে গিয়েছে দিল্লির উপর দিয়ে। এবার সেই দিল্লিতে মিলবে স্বস্তি। মৌসম ভবনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বুধবার সন্ধে থেকে শুক্রবার পর্যন্ত প্রবল বজ্র-বিদ্যুৎ সহ ঝড়-বৃষ্টি হবে। বইবে প্রবল ঝোড়ো হাওয়া।

একদিকে পশ্চিমি ঝঞ্ঝা ও অন্যদিকে রাজস্থান থেকে আসা দক্ষিণ-পশ্চিম বায়ুর জেরে এই ঝড় বৃষ্টি হবে বলে জানা গিয়েছে।, সঙ্গে রয়েছে সাইক্লোন। বুধবার থেকে ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়ে বৃহস্পতিবার সেই আবহাওয়া চরমে পৌঁছবে।

১০ জুন পর্যন্ত তাপপ্রবাহ থেকে অব্যাহতি পাবে উত্তর ভারত। মৌসম ভবনের অ্যালার্ট অনুযায়ী, ফরিদাবাদ, বল্লাভর্গ, বারসানা, ডিগ, মথুরা, ভরতপুর সহ একাধিক জায়গায় এই ঝড়-বৃষ্টি হবে।

অন্যদিকে, ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের প্রভাবে তাণ্ডব শুরু হয়ে গিয়েছে মুম্বই সহ গোটা মহারাষ্ট্রে। ১ টার আগেই ব্যাপক হাওয়ার দাপটে উপড়ে গিয়েছে বহু গাছ। ১ টা্র কিছু পরেই মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলায় ঝড়ের মুখ প্রবেশ করেছে । মুম্বইতে চলছে ব্যাপক হাওয়া সঙ্গী বৃষ্টি।

আলিবাগের দক্ষিণ দিক দিয়ে এটি যাবে বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। গতি হবে সর্বোচ্চ ১২০ কিলোমিটার। এটি লেভেল ২এর ঘূর্ণিঝড় বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে প্রকাশ্যে মানুষের চলাচলে বিধিনিষেধ জারি করেছে মুম্বই। মুম্বই উপকূলের তীরবর্তী সমুদ্র সৈকত, পার্ক এরকম খোলা জায়গায় বেরোনোর ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। গুজরাত, দমন-দিউ, দাদরা নগর হাভেলি এই সমস্ত জায়গায় ঝড়ের কারণে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প