কলকাতা: বাংলাদেশকে ইনিংস ও ৪৬ রানে হারিয়ে দেশের মাটিতে ঐতিহাসিক পিঙ্ক বল টেস্ট জিতে সিরিজ জয় বিরাটদের। আড়াইদিনেরও কম সময়ে ম্যাচ শেষ হলেও ইডেনে প্রথম দিন-রাতের ম্যাচের সঙ্গী একরাশ সাফল্য। আর এই সাফল্যের কান্ডারি হিসেবে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ ক্রিকেটের সমস্ত মহল।

উল্লেখ্য, সৌরভের আমন্ত্রণে দেশের মাটিতে প্রথম পিঙ্ক টেস্টের সূচনায় যেমন ইডেনে বেল বাজিয়ে খেলার শুভ সূচনা করেছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তেমনই ‘সিটি অফ জয়’ কলকাতায় টাটা স্টিল অ্যান্ড ব্লিৎজ চেস টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করতে এসে দ্বিতীয়দিন ইডেনে বেল বাজিয়ে খেলা শুরু করেন দাবায় বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন নরওয়ের ম্যাগনাস কার্লসেন। সঙ্গী ছিলেন দাবায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন বিশ্বনাথন আনন্দও। সুদূর নরওয়ে থেকে এসে ইডেনে টেস্ট ক্রিকেট সূচনা করার অনুভূতি কেমন।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নোত্তর পর্বে নয়া এই অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে গিয়ে কার্লসেন জানান, ‘বিষয়টা হচ্ছে আনন্দই বেলটা বাজাচ্ছিল, আমি স্রেফ দর্শক ছিলাম সেখানে। বোকার মত সবকিছু দেখছিলাম। এটাই আমার ম্যাচ নিয়ে সামগ্রিক অভিজ্ঞতা। ক্রিকেট সম্পর্কে বিশেষ ধারণা নেই আমার, অনেককিছু জানতে হবে।’ এরপরই আবার ঘুরিয়ে সাংবাদিকদের কার্লসেন প্রশ্ন করেন, ‘ম্যাচটা কি শেষ হয়ে গিয়েছে?’ এরপর যখন জানেন যে ভারত জিতে গিয়েছে তখন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দাবাড়ু মজার ছলে বলেন, ‘তাহলে ম্যাচ দেখতে যাওয়ার আর কোনও সুযোগ থাকল না।’

কার্লসেনের ক্রিকেট সম্পর্কে ধারণা না থাকাটা যদিও অস্বাভাবিক কিছু নয়। কারণ, নরওয়ের মত দেশে ক্রিকেট এখনও তেমন জনপ্রিয়তা অর্জন করে উঠতে পারেনি। উল্লেখ্য, কোহলির ২৭তম টেস্ট সেঞ্চুরি ও দুই ইনিংসে পেসারদের দাপটে ইনিংস ও ৪৬ রানে দেশের প্রথম পিঙ্ক বল টেস্ট জিতে একাধিক নজির গড়ে ভারতীয় দল। প্রথম টেস্ট দল হিসেবে টানা চার ম্যাচ ইনিংসে জিতে নয়া রেকর্ড গড়ল বিরাটের ভারতের। পাশাপাশি টানা সাতটি টেস্ট ম্যাচ জিতে নয়া নজির গড়ল ভারতীয় দল। টানা ম্যাচ জয়ের নিরিখে এটাই সর্বকালের রেকর্ড ভারতীয় দলের।

একইসঙ্গে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ২-০ সিরিজ জয়ের সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পয়েন্টের খাতায় আরও ৬০ পয়েন্ট যোগ হল ভারতের। প্রথম ৭ ম্যাচ থেকে পুরো পয়েন্ট (৩৬০) সংগ্রহ করে শীর্ষস্থানে অবস্থান মজবুত করল বিরাটের ভারত। ৯ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা ল্যাঙ্কি পেসার ইশান্ত শর্মা। সিরিজ সেরার পুরস্কারও তাঁরই ঝুলিতে।