শ্রীনগর: ইদের প্রার্থনার পরই নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়তে শুরু করল একদল কাশ্মীরি। অনন্তনাগের জাংগলাত মান্দি এলাকায় ওই সংঘর্ষে একজনের মৃত্যু হয়েছে। টিয়ার গ্যাস ছোঁড়ার পর অনন্তনাগের ব্রাকপোরার বাসিন্দা শিরাজ আহমেদের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার ভোর ৬টা ৪৫ মিনিট নাগাদ ইদের নমাজের ঠিক পরই এই সংঘর্ষ শুরু হয়। ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগান দিয়ে নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়া শুরু করে ওই কাশ্মীরি যুবকেরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে টিয়ার গ্যাস ছোঁড়া হয় বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে। প্যালেট গানও ব্যবহার করা হয়েছে। সংঘর্ষে আহত হয়েছে আরও তিনজন। শ্রীনগরের ইদগাহ এলাকাতেও বিক্ষোভ হয়।

অন্যদিকে, বারামুলা, সোপোর, বাদগাম, কুপওয়াড়া, গান্দারবাল এলাকাতে ইদের নমাজ চলে শান্তিপূর্ণভাবে।

এদিকে, লাগাতার পাক যুদ্ধবিরতি চুক্তিলঙ্ঘনে উত্তপ্ত জম্মু-কাশ্মীর৷ ইদের দিনেও উপত্যকায় নৌসেরা ব্লকে পাক গুলিতে শহিদ হলেন এক ভারতীয় সেনা৷ শহিদ সেনার নাম বিকাশ গুরুং৷ ইদ-উল-ফিতরের দিনেই নৌসেরা ব্লকে লাম গ্রামে পাক সেনা যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে৷ লাইন অব কন্ট্রোলে ভারতীয় পোস্ট লক্ষ্য করে মর্টার শেলিং ছোঁড়ে পাকিস্তান৷

অন্যদিকে আরনিয়া সেক্টরে যুদ্ধবিরতি চুক্তিলঙ্ঘন করে পাক সেনা৷ প্রত্যুত্তর দেয় ভারতীয় জওয়ানরা৷

বর্ডার সিকিওরিটি ফোর্সের হাতে ধরা পড়ে দুই পাক নাগরিক৷ শনিবার জম্মু-কাশ্মীরের সাম্বা সেক্টরে ধরা পড়ে দুজন৷ সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর খবর অনুযায়ী, ওই দুজনের বয়স ২১ এবং ৩১৷