মুম্বই: পয়লা মে বলতে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস শুধু ভাবলেই চলবে না, এই দিনটি আবার ভারতের মানুষের কাছে মহারাষ্ট্র দিবস নামেও পরিচিত ৷ কারণ ১৯৬০ সালের পয়লা মে তৎকালীণ বম্বে প্রদেশ ভেঙে মহারাষ্ট্র ও গুজরাত রাজ্য গড়ে উঠেছিল৷

এদিনটিতে মহারাষ্ট্রে প্যারেড ও অন্যান্য অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে দিনটি পালন করা হয়৷ এদিনটি যেমন মহারাষ্ট্র দিবস তেমনই আবার এই দিনটি গুজরাত রাজ্যেরও প্রতিষ্ঠা দিবসও ফলে সেখানেও এদিন নানা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে দিনটি পালন করা হয়৷

সংযুক্ত মহারাষ্ট্র সমিতি সেই সময় এই বম্বে প্রদেশকে দুটি রাজ্যে ভাঙার আন্দোলনের পুরধায় ছিল৷ ভাষার ভিত্তিতে ভাঙা হয়েছিল সেদিন রাজ্যটিকে কারণ সেই সময় ওই প্রদেশের প্রধান ভাষাগুলি ছিল মারাঠী, গুজরাতি, কুচ্ছি ও কোঙ্কানি ৷ ভাঙনের পরে একদিকে ছিল লোকের গুজরাতি এবং কুচ্ছি অন্যদিকের লোকের ভাষা ছিল মারাঠী এবং কোঙ্কানি৷

এদিনটিতে দেশের অর্থনৈতিক রাজধানীতে ছুটি থাকায় বন্ধ থাকে শেয়ার বাজারও৷ এই উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার অধুনা মুম্বইতে বন্ধ থাকছে শেয়ার, বন্ড, কমোডিটি কারেন্সি বাজার৷ তবে দুনিয়াজুড়ে বিভিন্ন প্রান্তেই আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষ্যে এদিনে বন্ধ রাখা হয় শেয়ার লেনদেন৷ তাই চিন , দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, হংকং, ইতালি স্পেন জার্মানিতে বন্ধ থাকে শেয়ার বাজার৷

সোমবারই সেনসেক্স ফের ৩৫,০০০ ছাড়িয়েছে এবং নিফটি ১০,৭০০ঘরে যা গত তিন মাসে সর্বোচ্চ৷ কোরিয়া ঘিরে উত্তপ্ত পরিস্থিতি কাটিয়ে শান্তির আবহাওয়াতে এশিয়ার শেয়ার বাজার কিছুটা চাঙ্গা হয়েছে৷ সোমবার দিনের শেষে বিএসই সূচকের অবস্থান ছিল ৩৫,১০০ পয়েন্টে এবং এনএসই সূচক ছিল পৌছে ছিল ১০৭৩৯ পয়েন্টে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.