মালদহ: জেলা পুলিশ প্রশাসনের দিসা প্রকল্পের মধ্য দিয়ে আলোর পথে যাচ্ছে পুরুষ ও মহিলারা। ফলে গ্রামের অর্থনৈতিক উন্নয়নয়ের চরিত্রের পরিবর্তন হচ্ছে। এবার গ্রামের মহিলাদের স্বনির্ভর করতে অভিনব উদ্যোগ নিল মালদহ জেলা পুলিশ। মালদহর কালিয়াচক থানার সুজাপুর এলাকার গয়েশবাড়ী গ্রামে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এলাকার মহিলাদের স্বনির্ভর করার জন্য ১০ টি সেলাই মেশিন দেওয়া হয়। গ্রামের মহিলাদের হাতে এই সেলাই মেশিনগুলি তুলে দেন জেলা পুলিশ সুপার অর্ণব ঘোষ।

সুজাপুরের গয়েসবাড়ি এলাকা বেশিরভাগ গ্রামের মহিলাদের একটি বড় অংশের মানুষ যুক্ত রয়েছে খাদি শিল্পের সঙ্গে। এখানে ঘরে ঘরে সুতো থেকে কাপড় তৈরি হয় এবং সেই কাপড় চলে যায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। মূলত গ্রামের মহিলাদের কাছ থেকে এই সুতোগুলো কেনে স্থানীয় খাদি কাপড়ের কারখানাগুলি। পাশাপাশি কুর্তি তৈরিতে সুনাম অর্জন করেছে গ্রামের বহু মহিলা। তাঁদের মধ্যেই পুলিশের পক্ষ থেকে ১০ টি সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়৷

এই সেলাই মেশিনগুলি গ্রামেরই একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার দফতরে থাকবে। সেখানে গ্রামের মহিলারা এসে তাদের কাপড় সেলাই করতে পারবে এবং তাদের তৈরি কাপড় চলে যাবে বিভিন্ন কারখানাতে৷ এতে তাদের কর্মসংস্থান এবং রোজগার বৃদ্ধি হবে। এরফলে তাদের করোর উপর নির্ভর করে চলতে হবে না।

গ্রামের মহিলা সাবনাম খাতুন বলেন, এই উদ্যোগটি খুব ভালো। এরফলে আমরা আগের থেকে বেশি রোজগার করতে পারব। পাশাপাশি আমাদের তৈরি জিনিস বেশি পরিমাণ বাইরে পাঠাতে পারব।

জেলার পুলিশ সুপার অর্ণব ঘোষ বলেন, জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে দিসা প্রকল্পের বহু কাজকর্ম করা হয়েছে এটিও তারই একটি অঙ্গ। আশা করি এই সেলাই মেশিনগুলি এখানকার মহিলাদের উপকারে লাগবে। আগামী দিনে এই ধরনের উদ্যোগ অন্যান্য গ্রামেও নেওয়া হবে। জেলা পুলিশ সুপার ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি,পুলিশের অন্যান্য কর্তারা ও গ্রামের মানুষ।