মেলবোর্ন: ঘরের মাঠেই বিদ্রুপ শুনতে হল প্রাক্তন অজি অধিনায়ক স্টিভ স্মিথকে৷ ‘স্যান্ডপেসার গেট’ কাণ্ডে এক বছরের নির্বাসন কাটিয়ে মাঠে ফিরেই দুরন্ত স্মিথ৷ বৃহস্পতিবার থেকে এমসিজি-তে শুরু হওয়া বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম দিনের শেষে ৭৭ রানে অপরাজিত রয়েছেন টপ-অর্ডার অজি ব্যাটসম্যান৷

বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম দিন চার উইকেটে হারিয়ে ২৫৭ রান তুলেছে অস্ট্রেলিয়া৷ স্মিথের সঙ্গে দিনের শেষে ২৫ রানে ক্রিজে রয়েছেন ট্রেভিস হেড৷ কিন্তু ব্যাট হাতে মাঠে নামার সময় এমসিজি-র দর্শকদের কাছে বিদ্রুপ শুনতে হয় স্মিথকে৷

যদিও এসব বিশেষ পাত্তা দিতে চান না স্মিথ৷ এদিন সাংবাদিক বৈঠকে প্রাক্তন অজি অধিনায়ক বলেন, ‘আমি ব্যাট করতে নামার সময় কোনও কিছু শুনি না৷ চিয়ারিং ব বিদ্রুপ কোনটাই নয়৷ ভালো বা মন্দ যাই হোক না কেন, এগুলো এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি৷’

এমসিজি’র রেকর্ড দর্শকদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া শোনা যায় স্মিথের ব্যাটিং করতে নামার সময়৷ গত বছর মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে কেপ টাউন টেস্টে বল টেম্পারিং কাণ্ডে এক বছরের জন্য নির্বাসিত ছিলেন স্মিথ৷ কিন্তু এক বছরের নির্বাসন কাটিয়ে বিশ্বকাপের ঠিক আগে অস্ট্রেলিয়া দলে ফিরলেও নেতৃত্ব হাতে পাননি স্মিথ৷

তবে ২০২০ মার্চে ফের অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্ব দিতে পারবেন স্মিথ৷ কারণ কারণ মার্চেই তাঁর ক্যাপ্টেনসির থেকে নির্বাসন উঠে যাচ্ছে৷ চলতি বছরে অ্যাশেজে স্বপ্নের ফর্মে ছিলেন স্মিথ৷ সেখানও বিদ্রুপ শুনতে হয়েছিল প্রাক্তন অজি অধিনায়ককে৷ কিন্তু এর মধ্যেও ১১০.৫৭ গড়ে ৭৭৪ রান করেছিলেন স্মিথ৷ বেন স্টোকসকে পিছনে ফেলে জিতেছিলেন ‘ম্যান অফ দ্য সিরিজ’ পুরস্কার৷

এর আগে মেলবোর্নে যখনই টেস্ট খেলতে নেমেছেন, সেঞ্চুরি করেছেন স্মিথ৷ এবারও সেঞ্চুরির পথে এগোছেন তিনি৷ লাঞ্চের পর দলের হাল ধরেন স্মিথ ও মার্নাস ল্যাবুশেন৷ তৃতীয় উইকেটে ৮৩ রান যোগ করে অস্ট্রেলিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যান এই দু’জনে৷ কিন্তু ব্যক্তিগত ৬৩ রানে ল্যাবুশেনকে আউট করে ফের অজিদের ধাক্কা দেয় নিউজিল্যান্ড৷ টানা পাঁচ ইনিংসে হাফ-সেঞ্চুরি করা অজি এই টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করেন কলিন গ্র্যান্ডহোম৷ ৭৭ রানে অপরাজিত থাকা স্মিথ শুক্রবার আরও পার্টনারশিপ গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে বড় স্কোরে পৌঁছে দিতে চান৷