সিডনি: নির্বাসন ফেরৎ স্মিথ-ওয়ার্নার হয়ে উঠবে আগের চেয়ে অনেক বেশি ভয়ঙ্কর। আর তাদের ক্ষুধার্ত মনোভাবই হয়ে উঠতে পারে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ জয়ের চাবিকাঠি। দেশের দুই ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা প্রসঙ্গে জানালেন কিংবদন্তি অজি লেগস্পিনার শেন ওয়ার্ন।

বিশ্বকাপে দলের মেন্টর হয়ে রিকি পন্টিং আগেই জানিয়েছিলেন, ‘স্টিভ স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার থাকলে অস্ট্রেলিয়ার ট্রফি ধরে রাখা খুব একটা কঠিন কাজ হবে না।’ এবার বিশ্বজয়ী প্রাক্তন অধিনায়কের সুরে সুর মিলিয়ে ওয়ার্নও স্বীকার করে নিলেন এক কথা। বুধবার এক সাক্ষাৎকারে ১৯৯৯ বিশ্বজয়ী দলের সদস্য জানান, ‘একবছর পর মাঠে ফিরে স্মিথ-ওয়ার্নারের বাড়তি খিদে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ জয়ের জন্য সহায়ক হয়ে উঠতে পারে।’

আরও পড়ুন: জামথায় অজি বধের রেকর্ড অক্ষত রাখল ভারত

স্যান্ডপেপার গেট কান্ডে নির্বাসিত দুই অজি ব্যাটসম্যানের নির্বাসনের খাঁড়া উঠছে আগামী ২৯ মার্চ। অন্যদিকে ৩০ মে ইংল্যান্ড-ওয়েলসের মাটিতে বসছে দ্বাদশ বিশ্বকাপের আসর। আর বিলেতের মাটিতে ট্রফি ধরে রাখাই লক্ষ্য ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে খুব একটা আশার আলো দেখছে না বিশেষজ্ঞ মহল। তবে এই দলে নির্বাসিত দুই ক্রিকেটারের উপস্থিতি বদলে দিতে পারে অনেককিছুই। ওয়ার্নের কথাতেই তা পরিষ্কার।

আরও পড়ুন: বিজয় শঙ্করের শেষ ওভার মনে করাল যোগিন্দর শর্মাকে

সম্প্রতি কনুইয়ে অস্ত্রোপ্রচারের পর সুস্থ হয়ে নেটে ফিরেছেন প্রাক্তন অজি দলনায়ক স্মিথ এবং তাঁর ডেপুটি ওয়ার্নার। দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে থাকার পর ইংল্যান্ডের মাটিতে চোট সারিয়ে দুই ব্যাটসম্যানের সফল হওয়ার প্রশ্নে দ্বিধাবিভক্ত সেদেশের ক্রিকেটমহল। তবে স্মিথ-ওয়ার্নারের সফল হওয়ার প্রশ্নে নিশ্চিত টেস্টে ৭০৮ উইকেটের মালিক। এপ্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘আগের মতোই দক্ষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কামব্যাক করবে তারা।’

আরও পড়ুন: রিয়ালকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে আয়াক্স

উল্লেখ্য, ২০০৩ বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক প্রাক্কালে নিষিদ্ধ ওষুধ সেবনের দায়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হয়েছিলেন ওয়ার্ন নিজেও। কিন্তু নির্বাসন থেকে ফিরেও বেশ কয়েক বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাফল্যের চূড়ায় থেকেছেন ওয়ার্ন। তাই স্মিথ-ওয়ার্নারের কামব্যাক প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে কিংবদন্তি লেগস্পিনারের আরও সংযোজন, ‘এমন ঘটনায় ক্রিকেটাররা উপলব্ধি করতে পারে যে ক্রিকেট তাদের জীবনে কতটা গুরুত্বপূর্ণ। নির্বাসনের মতো ঘটনা আরও ক্ষুধার্ত করে তুলতে সাহায্য করে।’