নয়াদিল্লি: ঐতিহাসিক ম্যাচ সন্দেহ নেই৷ এএফসি এশিয়ান কাপে নামার আগে ভারত যে রকম প্রস্তুতি ম্যাচ চেয়েছিল, এটা ঠিক সেরকমই মঞ্চ৷ চিনের মাটিতে চিনের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা সহজ নয় মোটেও৷ সুনীল ছেত্রীরা সুযোগটা কাজে লাগাতে বদ্ধপরিকর৷ বিশেষ করে এই ম্যাচের আগে অনুশীলন নিয়ে খুশি না হলেও কোচ স্টিফেন কনস্ট্যান্টাইন অত্যন্ত গুরুত্ব দিচ্ছেন চিনের মাটিতে ভারতের প্রথম ফুটবল ম্যাচকে৷ দীর্ঘদিন ধরে এরকমই শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বিদেশে ম্যাচ খেলার দাবি জানিয়ে এসেছেন তিনি৷ শেষমেশ তাঁর পরিকল্পনা বাস্তবে রূপ পেতে চলেছে৷

আরও পড়ুন: এমন অদ্ভূত পেনাল্টি কিক আগে কখনও দেখেননি

১৩ অক্টোবর সুঝৌ অলিম্পিক স্পোর্টস সেন্টার স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচে চিনের মুখোমুখি হবে ভারত৷ এর আগে মোট ১৭ বাবর দু’দেশ ফুটবলের ময়দানে সম্মুখ সমরে নেমেছে৷ যার মধ্যে রেড ড্রাগনস ম্যাচের দখল নিয়েছে ১২ বার৷ বাকি পাঁচটি ম্যাচ ড্র হয়েছে৷ অর্থাৎ চিনের বিরুদ্ধে কখনও জিততে পারেনি ভারত৷ শেষবার দু’লের মুখোমুখি লড়াই হয়েছিল ১৯৯৭ সালের নেহেরু কাপে৷ কোচিতে চিন ২-১ গোলে পরাস্ত করেছিল ভারতকে৷

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে অবশ্ব কোচ কনস্ট্যান্টাইন রীতিমতো অস্বস্তিতে৷ কেননা চিন ম্যচের দল ঘোষণা করার সময় হোঁচট খেতে হয়েছে তাঁকে৷ পাসপোর্ট সমস্যার জন্য চিনের ভিসা পাননি নির্ভরযোগ্য স্ট্রাইকার বলবন্ত সিং৷ তাঁর পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় এই বিপত্তি৷ ফলে তাঁকে বাদ দিয়েই দল গড়তে হয়েছে ভারতকে৷

আরও পড়ুন: নিজেকে ব্যালন ডি-অর’র দাবিদার মানতে নারাজ পোগবা

ভারতীয় কোচ চিন ম্যাচের জন্য ২২ জনের যে দল ঘোষণা করেছেন, তাতে রাখা হয়নি বলবন্তকে৷ চার জন স্ট্রাইকারে সুনীল-জেজে জুটির সঙ্গে রাখা হয়েছে সুমিত পাস্সি ও ফারুক চৌধরিকে৷ গোলকিপিংয়ে গুরপ্রীত-অমরিন্দরের সঙ্গে সুযোগ পেয়েছেন করণজিৎ সিং৷

ভারতীয় দল:
গোলকিপার: গুরপ্রীত সিং সাঁধু, অমরিন্দর সিং, করণজিৎ সিং
ডিফেন্ডার: প্রীতম কোটাল, সার্থক গোলুই, সন্দেশ ঝিংগান, আমাস এডাথোডিকা, সালাম রঞ্জন সিং, শুভাশিষ বোস, নারায়ন দাস
মিডফিল্ডার: উদান্তা সিং, নিখিল পূজারী, প্রণয় হালদার, রাওলিন বোর্জেস, অনিরুধ থাপা, বিনিত রাই, হালিচরণ নার্জারি, আশিক কুরুনিয়ান
স্ট্রাইকার: সুনীল ছত্রী, জেজে লালপেখলুয়া, সুমিত পাস্সি, ফারুক চৌধরি