কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কলকাতা সফর ঘিরে তুমুল বিরোধিতার ঝড় উঠেছে, দলীয় পতাকা হাতে না নিয়ে কালো পতাকা উড়িয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন অনেকেই। প্রধানমন্ত্রী বেলুড় মঠে দাঁড়িয়েও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রচারের পাশাপাশি ধ্যানে মগ্ন হতেও খামতি রাখেননি। অনেক বিষয় নিয়ে কথা বললেও আসল কারণগুলিতে কোনও কথাই বলেননি বলেই মন্তব্য করেছেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

কলকাতায় সফরের মাঝেই ডায়মণ্ডহারবারের সাংসদ জানিয়েছেন, “দিদি মানুষের প্রয়োজন এবং তিনি কতটা উদ্বিগ্ন তা জানানো সত্ত্বেও কোনও কাজ হয়নি। শ্রদ্ধেয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অনেক বিষয়ে কথা বললেও আসল কারণগুলি এড়িয়ে গিয়েছেন”।

তিনি আরও বলেন যে, “কেন্দ্রের কাছে পশ্চিমবঙ্গের ৩০ হাজার কোটি টাকা প্রাপ্য অর্থ বাকি আছে। ৭ হাজার কোটি টাকা বুলবুলে ক্ষতির জন্য পাওনা আছে। তিনবছর আগে প্রধানমন্ত্রী কথা দিয়েছিলেন গঙ্গাসাগরে লোহার ব্রিজ তৈরি করে দেবেন। এইরকম বহু ইস্যু রয়েছে যেদিকে প্রধানমন্ত্রীর নজর দেওয়া প্রয়োজন। এই কথাগুলো তাঁর বক্তব্য থেকে সম্পূর্ণ বাদ রয়েছে”।

অভিষেক প্রশ্ন তুলেছেন যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কেন এই বিষয়গুলিকে এড়িয়ে গেলেন, একটা কথাও কেন বললেন না। পাশাপাশি এও প্রশ্ন তুলেছেন যে বিজেপি শাসিত রাজ্যের সঙ্গে অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যের সঙ্গে পার্থক্য করারও অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

বিজেপি এবং অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গের মতন, সব অ-বিজেপি রাজ্যগুলিতেই কেন্দ্রীয় সরকার এই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখা যাচ্ছে।