স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: নেট দুনিয়ায় মুঠোফোনের প্রভাব বেড়েই চলেছে। ফলে বইপাঠকের সংখ্যা দিনে দিনে কমে যাচ্ছে। মানুষকে বইমুখি করার জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে গ্রন্থগার বিভাগ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে উন্নতমানের গ্রন্থগার গড়ে তোলার জন্য অর্থ বরাদ্দ করেছে।

রাজ্য গ্রন্থগার দফতরের পক্ষ থেকে দেওয়া ৭২ লক্ষ টাকায় পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দকুমারের নরঘাটে একটি প্রাচীন ভগ্নপ্রায় গ্রন্থাগারকে নব রুপে সাজিয়ে তোলার কাজ শুরু হয়েছে। শুক্রবার নরঘাট লবণ সত্যাগ্রহ স্মৃতি পাঠাগারের নতুন ভবনের শিলান্যাস করেন স্থানীয় বিধায়ক সুকুমার দে।

আরও পড়ুন: বেহুলার অভিশাপ থেকে বাঁচতে আজও এখানে জুয়া খেলেন মহিলারা…

উপস্থিত ছিলেন নন্দকুমার পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দীননাথ দাস, কর্মাধ্যক্ষ ঋষিকেশ মাজি, প্রাক্তন উপপ্রধান আশিস মাইতি সহ অন্যান্যরা। এদিন বিধায়ক সুকুমার দে বলেন, নরঘাট লবণ সত্যাগ্রহ স্মৃতি পাঠাগার আমাদের কাছে একটি স্মৃতি। কারন জাতির জনক গান্ধীজি লবণ আইন আন্দোলনের একটি পাঠ এখানে হয়েছিল। সেই স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশে রাজ্য গ্রন্থাগার বিভাগের সহযোগিতায় নতুন পাঠাগারের কাজ শুরু হল।

তিনি আরও বলেন বর্তমান সময় যুবক- যুবতীরা মুঠোফোনেই আকৃষ্ট হয়ে পড়ছে৷ তাঁদের বইমুখী করতে হবে। তাই রাজ্য সরকারের গ্রন্থাগার বিভাগের দেওয়া অর্থে একটি উন্নতমানের গ্রন্থাগার গড়ে তোলা হচ্ছে। কয়েক মাসের মধ্যে নতুন ভবনটি গড়ে উঠবে। বর্তমান প্রজন্মের ছেলে- মেয়েরা যাতে বেশি করে পাঠাগারে এসে বই পড়ে সেদিকে আমাদের নজর থাকবে।।