স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: কার্টুন কাণ্ডে অম্বিকেশ মহাপাত্রকে রাজ্যের জরিমানা সংক্রান্ত মামলায় মানবাধিকার কমিশনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলল কলকাতা হাইকোর্ট। সোমবার বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি শুভ্রা ঘোষের ডিভিশন বেঞ্চ কমিশনের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে৷

বেঞ্চ রাজ্যের কাছে জানতে চায়, ‘মানবাধিকার কমিশন কেন আছে ? কিছু ব্যক্তি যাতে অবসরকালীন সুযোগ সুবিধা ঠিকভাবে পান, সেটা দেখার জন্য ? নাকি তাদের অধিকার খর্ব হলে তারা যাতে সুবিচার পান সেটা দেখার জন্য ?

আরও পড়ুন : এনআরএস হাসপাতালে কুকুর কান্ডে গ্রেফতার না হলে আন্দোলন- ডগ লাভার্স

ডিভিশন বেঞ্চের আরও মন্তব্য, ‘কেন মানবাধিকার কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়িত করতে সরকার বাধ্য থাকবে না? এক্ষেত্রে কোনও রাজনৈতিক রং দেখা যুক্তিপূর্ণ নয়। যদি কোনও কমিশন সুপারিশ করে যে ২০টা ব্রিজ বানাতে হবে, সেক্ষেত্রে বলা যেতে পারে যে ২০টা বানাতে পারবো না, কিছু কম বানাতে পারবো। কিন্তু যখন কমিশন সুপারিশ করেছে যে দুই ব্যক্তিকে ক্ষতিপূরণ এবং ২ জন পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের তদন্ত করতে হবে, তখন আপনারা বসে থাকতে পারেন না।’

উল্লেখ্য, অম্বিকেশবাবুকে ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সুপারিশ করেছিল মানবাধিকার কমিশন। পুলিসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও সুপারিশ করা হয়। কিন্তু নয় মাস পেরিয়ে যাওয়ার পরেও রাজ্য সরকার ব্যবস্থা না নেওয়ায় অম্বিকেশ মহাপাত্র হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন।