স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: স্কুলের গণ্ডী পেড়িয়ে কলেজ যাওয়ার পথে প্রধান অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় কলেজে ভরতি। উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে স্কুলের সদ্য প্রাক্তন হওয়া পড়ুয়াদের সুবিধার্থে বিশেষ ব্যবস্থা নিল রাজ্য সরকার।

বছর খানেক আগেও কলেজে ভরতি হওয়ার জন্য বিশাল লাইনে দাঁড়াতে হতো। এখন অনলাইন ব্যবস্থা চালু হওয়ার দৌলতে সেই ঝামেলা আর নেই। ভরতি প্রক্রিয়া অনলাইন হওয়ায় এখন পুরোটাই প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে গিয়েছে। সেই কারণে এখন ডিজিটাল সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে কলেজে ভরতির আবেদনকারীদের। কোথাও আচমকা সাইবার ক্যাফেতে ইন্টারনেট কানেকশনের সমস্যার কারণে থমকে যাচ্ছে আবেদন প্রক্রিয়া। কখনও আবার অতিরিক্ত চাপে বসে যাচ্ছে কলেজের ওয়েবসাইট। কেউ আবার বুঝতে পারছেন না কোন কলেজে ভরতির জন্য কী কী নিয়ম রয়েছে। অনেকে আবার বিষয় সমন্বয় করতে গিয়ে সমস্যার পড়ছেন।

এই সকল সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এল পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর অনুপ্রেরণায় ২০১৭ সালের স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে ভরতির জন্য সহায়তা কেন্দ্র খুলল রাজ্য। রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং জৈবপ্রযুক্তি দফতরের উদ্যোগে চালু হয়েছে হেল্পলাইন নম্বর।

রাজ্যের বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে ভরতিতে ইচ্ছুক পড়ুয়াদের জন্য চালু হচ্ছে এই হেল্পলাইন। সেই হেল্পলাইন নম্বরটি হল ১৮০০১০২৮০১৪। চলতি মাসের ১৫ তারিখ থেকে চালু হবে এই হেল্পলাইন নম্বর। রাজ্যের কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ভরতি প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই হেল্পলাইন নম্বর চালু থাকবে। প্রতি সপ্তাহের সোম থেকে শনিবার সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এই হেল্পলাইন নম্বরে ফোন করে পড়ুয়ারা কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পাবেন।