বারাকপুর: সাইবার ক্রাইম অপরাধে গ্রেফতার হয়েছেন কংগ্রেস নেতা সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর থেকেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। সেই জটিলতার মাঝেই তাঁদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন রাজ্য বিজেপি।

বিজেপির প্রতিনিধি দলে ছিলেন রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি জয় প্রকাশ মজুমদার, রাজ্য বিজেপি মহিলা নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল সহ উত্তর ২৪ পরগনার জেলার বিজেপি নেতৃত্ব। কেন্দ্রে বিজেপি ও কংগ্রেস পরস্পরের বিরোধী হলেও দল ও রাজনীতির ঊর্ধ্বে মানবিকতার খাতিরে সন্ময়বাবুর পরিবারের পাশে এসে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য বিজেপি।

রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি জয় প্রকাশ মজুমদার এদিন সন্ময়বাবুর গ্রেফতারি প্রসঙ্গে অভিযোগ করেন যে, “তৃণমূলের বক্তব্য অনুযায়ী এই রাজ্যে যেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অঙ্গুলি হেলন ছাড়া কোন কাজ হয় না, সেখানে সন্ময় বাবুকে ও অনার নির্দেশেই গ্রেফতার করা হয়েছে। সন্ময়বাবু নিজের লেখনি দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করছেন। গনতন্ত্রে সরকারের কাজের বিরুদ্ধে সমালোচনা হতেই পারে সন্ময়বাবু তার লেখা ও মুখের কথা দিয়ে সেটা করেছেন তিনি অন্তত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত বিধানসভা ভাঙচুর করেননি।”

ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেস ছাড়া সমস্ত রাজনৈতিক দলই সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিবারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। এদিন আগরপাড়ায় সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায় এর বাড়ি এসে বেশ কিছুক্ষন কংগ্রেস নেতা সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিবারের সাথে একান্তে কথা বলেন, রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার এবং রাজ্য মহিলা নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল জেলা সভাপতি কিশোর কর সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এদিন সন্ময় বাবুর পরিবারের সাথে কথা বলে বেড়িয়ে বিজেপি নেত্রী আগ্নিমিত্রা পল বলেন যে” আমরা আজ রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে মানুষ হিসেবে মানবিকতার জন্য রাজ্যের নাগরিক হিসাবে সন্ময় বাবুর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমরা কোন রকম রাজনৈতিক স্বার্থ ছাড়াই রাজ্যের নাগরিক হিসেবে সন্ম য় বাবুর পরিবারকে সব রকম সাহায্য করতে প্রস্তুত।”

জয় প্রকাশবাবু আরও বলেন যে, “রাজ্যের গনতন্ত্রকে রক্ষার করার জন্য এবং যেসমস্ত বুদ্ধিজীবীরা এখনও মেরুদন্ড সোজা রেখে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেন তাদের নিরাপত্তা দেবার জন্যে আমরা তাদের পাশে সব সময় আছি। যারা গনতন্ত্রকে নষ্ট করতে চাইবে তাদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলবে বিজেপি। আমরা রাজনীতির উপরে উঠে সন্ময়বাবুকে পুলিশি হেফাজত থেকে মুক্ত করবার জন্য সন্ময়বাবুর পরিবারকে সব ধরনের সাহায্য করবো।”

অক্টোবর মাসের ১৭ তারিখ সাইবার ক্রাইম অপরাধে পানিহাটি পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন পৌর পিতা সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে পুরুলিয়া সাইবার ক্রাইম ব্রাঞ্চের পুলিশ। গ্রেফতারের পরের দিনই বাম ও কংগ্রেস যৌথভাবে আন্দোলন করে খড়দা থানায়। আর শনিবার রাজ্য বিজেপির এক প্রতিনিধিদল সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে আসেন। এদিন বিজেপির ওই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা সন্ম য় বাবুর পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে সন্ময়বাবুর গ্রেফতারি নিয়ে আলোচনা করেন।