কলকাতা: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী মিছিলের ডাক দিয়েছেন ছাত্রসমাজের একাংশ। ফের অশান্ত হয়ে উঠতে পারে শহর। সতর্ক রয়েছে লালবাজার।

জানা গিয়েছে, আজ শনিবার বিকেল ৩ টায় মিছিল শুরু হবে ধর্মতলা শহিদ মিনার থেকে। সেখান থেকে মিছিল যাবে মুরলীধর সেন লেনে বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে। মূলত এই মিছিল নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে বিজেপি রাজ্য দফতর অভিযান।

এদিন ধর্মতলার শহিদ মিনারে জমায়েত হবে যাদবপুর ও এসআরএফটিআই পড়ুয়াদের একাংশ। একই সঙ্গে সাধারণ মানুষকেও এই মিছিলে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে যাদবপুরের পড়ুয়াদের তরফে। সিটিজেন আম্যাডমেন্ট অ্যাক্ট ঘিরে ফের একবার ধুন্ধুমারের আশঙ্কা শহরে।

এর আগে বারেবারে বিজেপি সাংসদ থেকে শুরু করে এবিভিপি কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে বচসা ও ঝামেলায় জড়িয়েছিল যাদবপুরের পড়ুয়ারা। আশঙ্কা করা হচ্ছে, শনিবারও মুরলীধর সেন লেন অভিযান ঘিরেও ঝামেলা হতে পারে। এইদিন দুপুর ৩ টের সময় ধর্মতলায় জমায়েত হবে যাদবপুর ও এসআরএফটিআই-এর পড়ুয়ারা। সেখান থেকেই শুরু হবে বিজেপির সদর দফতর অভিযান।

পড়ুয়াদের তরফে জানানো হয়েছে এই মিছিলে কোনও রাজনৈতিক দলের রং-ঝান্ডা থাকছে না। আর সে কারণেই মিছিলে সাধারণ মানুষ সহ রাজ্যের সমস্ত পড়ুয়াদের এই মিছিলে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। এর আগে কলকাতায় বিজেপির সদর দফতর অভিযানের ডাক দিয়েছিল প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা। তা নিয়ে কিছুটা উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল কলকাতার রাস্তা। তাই আজ শনিবারের মিছিল ঘিরেও আশঙ্কা থাকছেই।

প্রসঙ্গত, রবিবার রাতে দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশি অভিযান ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। সেই ঘটনার প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিল সারা দেশের বৃহত্তর অংশের পড়ুয়ারা। কলকাতাতেও হয়েছিল প্রতিবাদ। রবিবার রাত ১১ টা থেকেই ধরনায় বসেছিল যাদবপুরের পড়ুয়ারা। তবে সেদিনের সেই প্রতিবাদ যে সেখানে থেমে যাবে না, শনিবার অভিযানের ডাক দিয়ে সেই কথাই যেন বুঝিয়ে দিল পড়ুয়ারা।