স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: পঞ্চায়েত ভোট পূর্ববর্তী হিংসায় নিহত হয়েছিলেন রানীবাঁধের বিজেপি দলের কর্মী অজিত মুর্মু৷ তাঁর স্ত্রী উর্ম্মিলা মুর্মুর হাতে পাঁচ লক্ষ টাকার চেক তুলে দিল রাজ্য বিজেপি। সোমবার বাঁকুড়ার সিমলাপাল ব্লক কমিউনিটি হলে পঞ্চায়েত ভোটে দলের হয়ে জেলায় প্রতিদ্বন্দ্বিকারী কর্মীদের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান মঞ্চে এই চেক তুলে দেওয়া হয়।

এদিন সিমলাপালে বাঁকুড়া জেলা বিজেপির ডাকে এই সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দলের রাজ্য সহ সভাপতি সুভাষ সরকার, রাজ্য নেতা সুব্রত চট্টোপাধ্যায়, জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র প্রমুখ।

বাঁকুড়ার বিজেপি জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র অভিযোগ করে বলেন, ‘‘তৃণমূল হিংসা, ছাপ্পা, রিগিং আর সন্ত্রাস করেও বিজেপিকে রুখতে পারেনি। এত সবের পরেও এই জেলায় আটটি পঞ্চায়েতে আমরা জিতেছি। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ ভোট হলে ফলাফল ঠিক এর উলটো হত। এত সন্ত্রাসের পরেও যেসব নির্ভীক কর্মী ভোটের লড়াই থেকে সরে আসেননি তারা দলের সম্পদ। সেকারণেই অকুতোভয় প্রত্যেক প্রার্থীকেই এদিন সম্বর্ধনা জানানো হয়৷’’

উল্লেখ্য, পঞ্চায়েত ভোটের আগে রানীবাঁধ ব্লক অফিসে মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুষ্কৃতিদের হাতে আক্রান্ত হন বিজেপি কর্মী অজিত মুর্মু। তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই তার মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় বিজেপির পক্ষ থেকে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙ্গুল তোলা হয়। যদিও তৃণমূল নেতৃত্ব বিষয়টি অস্বীকার করেন।