কলকাতা:  দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকের মধ্যে একটি স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া। একটা সময় এই ব্যাংকের বিরুদ্ধে ভুরি ভুরি অভিযোগ ছিল গ্রাহকদের। যদিও সময়ের সঙ্গে বদল ঘটছে। গ্রাহক পরিষেবার মান উন্নতি ঘটিয়েছে ব্যাংক কতৃপক্ষ। আগামীদিনে গ্রাহক পরিষেবাই একমাত্র পাখির চোখ স্টেট ব্যাংক ইন্ডিয়ার। আর সেই পরিষেবার বহর বাড়াতে আরও বেশি প্রযুক্তিগত সুবিধা আনবে তারা।

স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের বেঙ্গল সার্কেলের ৫৪তম বার্ষিক সাধারণ সভায় এসে এমনটাই জানিয়েছেন ব্যাংকের বেঙ্গল সার্কেলের চিফ জেনারেল ম্যানেজার রঞ্জন মিশ্র। গত কয়েকদিন আগে অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভায় যোগ দেন রঞ্জন মিশ্র। তিনি বলেন, একটি ব্যাংকের এগিয়ে যাওয়া তখনই সম্ভব, যখন তার পরিচালক গোষ্ঠী এবং কর্মী ও অফিসারদের সংগঠন একযোগে কাজ করে।

ওই সভায় এআইবিওসি’র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সৌম্য দত্ত বলেন, গোটা দেশ আর্থিক দিক থেকে ভেঙে পড়েছে। তারই মধ্যে শুধু যে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলিকেই বিলগ্নিকরণের পথে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে, তা নয়। একাধিক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে বিক্রির করার উদ্যোগ শুরু হয়েছে। একযোগে সেসবের প্রতিবাদের পাশাপাশি ব্যাংক সংযুক্তিকরণের বিরুদ্ধে দিল্লিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানিগেছেন সৌম্যবাবু। যেহেতু রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিসএনএলের পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হয়ে উঠছে, তাই তারই প্রতীকী প্রতিবাদ হিসেবে ওই অনুষ্ঠানে জায়গা দেওয়া হয় বিএসএনএলকেও। সেখানে সংগঠনের সদস্যরা সিম কেনেন বিএসএনএলের কর্মী-অফিসারদের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে।