দিনে রাতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে বেলার খাবার তা হল প্রাত:রাশ। দিনের এই বেলার খাবার কখনোই মিস করা উচিত নয়৷ কারণ রাতের খাবারের প্রায় আট থেকে দশ ঘন্টা পর শরীর খাবার পায়৷ প্রাতঃরাশ কখনোই খুব ভারীও হওয়া উচিত না আবার একেবারে হালকাও হওয়া উচিত নয়৷ প্রাতঃরাশের খাবার হওয়া উচিত স্বাস্থ্যকর৷ যা থেকে সারাদিনের শক্তি পাওয়া যায়৷ এবং আপনাকে রাখবে প্রাণবন্ত ও সুস্থ৷

জেনে নেওয়া যাক এমন কয়েকটি প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যা আপনার প্রাতঃরাশকে স্বাস্থ্যকর করে তুলবে৷

১) এগ পরোটা: চিরাচরিত পরোটার থেকে মুক্তি পেতে খাবারে একটু টুইস্ট আনুন৷ ডিমের ভুজিয়া তৈরি করে তা পুর হিসাবে পরোটার ভিতর দিয়ে দিতে পারেন৷ অথবা অমলেট বানিয়ে সেটি পরোটার ওপর ছড়িয়ে দিতে পারেন৷

২) ওটস ইডলি: ওটস অনেকেই পছন্দ করে না৷ কিন্তু ওটস দিয়ে ইডলি ও উপমা বানিয়ে নিতে পারেন৷ একেবারে স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ খাবার৷

৩) চিকেন সসেজ উইথ এগ: নামেই পরিস্কার এটা হাই প্রোটিন যুক্ত খাবার৷ কম তেলে চিকেন সসেজ ভেজে নিন৷ সঙ্গে ডিমের ভুজিয়া৷ আহ ভাবলেই জিভে জল চলে আসে৷

৪) সোয়া উথ্থাপম: ময়দা সোয়া দিয়ে উথ্থাপম বানিয়ে দেখুন৷ আপনার খাবারের পুষ্টিগুণ বাড়িয়ে তুলবে৷ ফ্যাট কম অথচ হাই প্রোটিন যুক্ত খাবার৷

৫) অ্যাপেল চিয়া সিডস স্যুমদি: আগের রেসিপি গুলোর থেকে খুব সহজ ও সুস্বাদু অথচ প্রোটিন সমৃদ্ধ৷ কয়েকটি আপেলকে মিক্সিতে ব্লেন্ড করে নিন৷ তাতে দই, চিয়ার বীজ(একটি মিন্ট জাতীয় বীজ), পিনাট বাটার দিয়ে মিশিয়ে নিন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।