ওয়াশিংটন : ৯২-এ চলে গেলেন হাসির রাজা সামি সোর। রবিবার সকালেই সকল অনুরাগীদের মুখের হাসি থমকে দিয়ে অনন্তের পথে পাড়ি দিলেন বর্ষীয়ান এই কৌতুক শিল্পী।

মার্কিন এক সংবাদ সংস্থার খবর অনুযায়ী, রুডি দে লুকার সঙ্গে পার্টনার শিপে একটি কমেডি স্টোর প্রতিষ্ঠা করেছিলেন তিনি। ৭০ বছরের দীর্ঘ কর্মজীবনে পেয়েছেন অগণিত ভক্ত। নিজে একজন কৌতুক শিল্পী হওয়ার দরুন প্রচুর কমেডি শো করেছেন তিনি। সেই সঙ্গেই বহু হলিউডি ছবিতে অভিনয়ও করেছেন কৌতুক অভিনেতা হিসেবে। তার ঝুলিতে রয়েছে – ‘জেরি লেয়ুইস দ্য বেল বয়’, ‘মেল ব্রুকস’, ‘লাইফ স্তিঙ্কস’। টেলিভিশনেও বিভিন্ন কমেডি শোয়ে অংশ নিয়েছেন তিনি। ‘স্যান্ড ফোরড অ্যানড স্ন’ নামে একটি টেলিভিশন সিরিজে অংশ নিয়েছেন তিনি।

তার মৃত্যুর খবরে তার কমেডি স্টোর থেকে পোস্ট করা ফেসবুক পোস্ট অনুযায়ী, এডওয়ার্ড সুলিভান শো ছিল তার সবচেয়ে পছন্দের শো। বহু কমেডি শোয়ের প্রযোজনাও করেছেন তিনি। ‘ব্রাদার সাম’, ‘কাম হিল উইথ মি’ ‘সেভেন্টি স্কস’ তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য। তিনটি বইও লিখেছেন তিনি। কিন্তু ‘লাস্ট কমিক সিটিং ‘ নামে তার লেখা শেষ বইটি তিনি শেষ করে যেতে পারেন নি।

এদিন তার এই কমেডি স্টোরের ফেসবুক পেজে দুঃখ প্রকাশ করে লেখা হয়, “ভাষায় বর্ণনার মত শব্দ নেই, কতটা তার হাসির উপহার, বন্ধুত্ব এবং সহচর্য হারালাম। তিনি জীবনে আশার আলো দেখাতেন এবং জীবনে হাসি ফিরিয়ে দিতেন যা অম্লান। তার জন্য একটাই শব্দ রয়েছে ‘সাম দা’।

সামি সোরের ছেলে পলি সোরও একজন কৌতুক শিল্পী। বাবার মৃত্যুতে টুইটারে দুঃখ প্রকাশ করেছেন তিনিও। তিনি লিখেছেন, “বাবা তুমি একটা অসাধারণ জীবন যাপন করেছ। আমার বলতে গর্ব হয় তুমি আমার বাবা। যখন তুমি পরলোকে থাকবে তখন আমি রাতের পর রাত মঞ্চে তোমার ধারা বহন করে নিয়ে যাব। তোমায় ভালবাসি বাবা। শান্তিতে থেকো।”