কলম্বো: ইস্টার সানডে৷ তাই নিয়মমতো গীর্জায় গিয়ে শান্তমনে প্রার্থনায় রত ছিলেন অনেকে৷ কিন্তু সেই শান্ত মনেই হঠাৎই থাবা বসল আতঙ্কের, রক্তাক্ত হয়ে উঠল ইস্টার সানডে৷ ২১ এপ্রিল, সকাল ৮.৪৫মিনিট নাগাদ ৩টি গীর্জা এবং ৩টি বিলাসবহুল হোটেলে পর পর বিস্ফোরণে এভাবেই শুরু হল শ্রীলঙ্কার রবিবাসরীয় দিনটি৷

ইতিমধ্যেই নিহতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৫০৷ আহতরা আশঙ্কাজনক অবস্থায় জীবন-মরণ খেলার মাঝে৷ এই ভয়াবহ নাশকতার পিছনে কারা রয়েছে তাও যেমন স্পষ্ট নয়, কারা টার্গেট ছিল সেটাও স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না৷ তবে এমন ঘটনা যে ঘটতে পারে সে আশঙ্কার কথা নাকি আগেই জানিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান৷

জানা গিয়েছে, টাইমস অব ইন্ডিয়া সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে, পুলিশ প্রধান পুজুথ জয়সুন্দর শীর্ষ কর্তাদের আত্মঘাতী হামলার আশঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন৷ তাও আবার ১০ দিন আগে৷ রবিবারের বিস্ফোরণের বিষয়ে সতর্কতাও জারি করেছিলেন দেশে৷ বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থা জানায়, National Thowheeth Jama’ath বা NTJ দেশের প্রধান গীর্জাগুলিকে টার্গেট করে আত্মঘাতী হামলা করতে পারে৷ টার্গেট করা হতে পারে কলম্বোর ইন্ডিয়ান হাই কমিশনও৷

এই আশঙ্কার কথা জানানোর পরেও এই ধরণের একটি ঘটনা এড়াতে কেন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা গেল না সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ অন্যদিকে, এই নাশকতার ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই ইন্ডিয়া হাই কমিশন একাধিক হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে৷ এই নম্বরে ফোন করে শ্রীলঙ্কায় ভারতীয় নাগরিকদের সাহায্যার্থে এই হেল্পলাইন নম্বরগুলি হল, +94777903082, +94112422788, +94112422789