হায়দরাবাদ: ঘরের মাঠে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে হারিয়ে ১২ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফের পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ৷ সোমবার উপলে প্রীতি জিন্টার দলকে ৪৫ রানে হারায় গতবারের রানার্স সানরাইজার্স৷ ২১৩ রান তাড়া করে ৮ উইকেটে ১৬৭ রানে থেমে যায় কিংস ইলেভেন ইনিংস৷

হায়দরাবাদের কাছে হেরে প্লে-অফের রাস্তা থেকে আরও দূরে সরে গেল কিংস ইলেভেন৷ বড় রান তাড়া করতে নেমে ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই ক্রিস গেইলের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় প্রীতি জিন্টার দল৷ ব্যক্তিগত ৪ রানে খলিল আহমেদের বলে ডাগ-আউটে ফেরেন গেইল৷ লোকেশ রাহুল একদিক ধরে রাখলেও অন্য প্রান্তে নিয়মিত উইকেট হারায় কিংস ইলেভেন৷ রাহুলের দুরন্ত ইনিংসেও জয় থেকে ৪৫ রান দূরে থেমে যায় রবিচন্দ্রন অশ্বিনরা৷ ৫৬ বলে ৫ ছক্কা ও চারটি বাউন্ডারির সাহায্যে ৭৯ রানে আউট হন৷

সানরাইজার্সের ম্যাচ জয়ে বড় ভূমিকা নেন চ্যাম্পিয়ন স্পিনার রশিদ খান৷ ৪ ওভারে মাত্র ২১ রান দিয়ে তিনটি উইকেট তুলে নেন হায়দরাবাদের এই আফগান লেগ-স্পিনার৷ ব্যাট হাতে ওয়ার্নার ও বল হাতে রশিদ দু’ দলের প্রার্থক্য গড়ে দেয়৷ ময়াঙ্ক আগরওয়াল (২৭), ডেভিড মিলার (১১) এবং ক্যাপ্টেন অশ্বিনকে শূন্য রানে ডাগ-আউটে ফেরান রশিদ৷ ক্রমশ বিধ্বংসী হয়ে ওঠা পুরানকে ফেরান খলিল৷ ১০ বলে দু’টি চার ও দু’টি ছক্কা-সহ ২১ রান করেন পুরান৷

এর আগে ডেভিড ওয়ার্নারের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ৬ উইকেটে ২১২ রান তোলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ৷ ওয়ার্নারের সঙ্গে এদিন সানরাইজার্সের ইনিংস শুরু করেন ঋদ্ধিমান সাহা৷ চলতি আইপিএলে পাওয়ার প্লে-তে (৬ ওভার) সবচেয়ে বেশি ৭৭ রান তোলে সানরাইজার্স৷ ওপেনিং জুটিতে ৭৮ রান যোগ করেন৷ ৬.২ ওভারে প্রথম উইকেট হারায় সানরাইজার্স৷ ১৩ বলে একটি ছক্কা ও তিনটি বাউন্ডারির সাহায্যে ব্যক্তিগত ২৮ রানে ডাগ-আউটে ফেরেন ঋদ্ধিমান৷ ঋদ্ধি আউট হওয়ার পর পরের দশ ওভারে কিংস ইলেভেন বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলা করেন ওয়ার্নার৷ শেষ পর্যন্ত ব্যক্তিগত ৮১ রানে ডাগ-আউটে ফেরেন অজি বাঁ-হাতি ওপেনার৷ ৫৬ বলের ইনিংসে সাতটি বাউন্ডারি ও দু’টি ছক্কা হাঁকান ওয়ার্নার৷ এছাড়া মনীশ পান্ডে ২৫ বলে ৩৬ এবং মহম্মদ নবি ১০ বলে ২০ রান করেন৷

এই হারের ফলে ১২ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ তালিকায় ছ’ নম্বরে থাকল কিংস ইলেভেন৷ লিগে তাদের শেষ দু’টি ম্যাচে কলকাতা নাইটরাইডার্স ও চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে৷ আর সানরাইজার্স লিগে তাদের শেষ দু’টি ম্যাচ মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে৷ এর পর থেকে অবশ্য আর ওয়ার্নারকে পাবে না হায়দরাবাদ৷ বিশ্বকাপে দেশের প্রস্তুতি শিবিরে যোগ দিতে ফ্র্যাঞ্চাইজির দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিচ্ছেন বাঁ-হাতি অজি ওপেনার৷