স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: দল তাঁকে সতর্ক করেছিল৷ বিরোধী কারও সঙ্গে কোনও রকম সম্পর্ক রাখা যাবে না৷ তা সত্বেও শনিবার রাতে এক বিজেপি নেতার সঙ্গে সল্টলেকে তিনি বৈঠক করেছেন৷ এমনটাই সূত্রের খবর৷ যার কথা বলা হচ্ছে, তিনি হলেন বিধাননগর পুরসভার মেয়র সব্যসাচী দত্ত৷

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল রাজ্যের সব আসনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে৷ কিন্তু বিজেপির এখনও বেশ কয়েকটি আসনে প্রার্থীদের নাম ঘোষনা করা হয়নি৷ আর সেখানেই সব্যসাচীকে ঘিরে নানা জল্পনা চলছে৷ জল্পনা তো ছিলই সেটা শনিবার আরও উস্কে দিল দিলীপ সব্যসাচী বৈঠকের খবরে৷ যদিও সব্যসাচী ওই মিটিং এর কথা অস্বীকার করেছেন৷ অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানান, ‘‘একসঙ্গে খেয়েছি৷ ওঁর সঙ্গী ছেলেরা ছিল৷’’

হোলির দিন সল্টলেকে একটি রঙের উৎসবে মেয়র সব্যসাচী দত্ত বলেছিলেন, ‘জয় ভারত, ভারত মাতা কি জয়৷ আমি মেয়র থাকি না থাকি, আমি এমএল-এ থাকি না থাকি, আপনাদের সঙ্গে আমি আছি ৷ মেয়র বা এমএলএ হয়ে জন্মাইনি৷ মেয়র বা এমএলএ হয়ে মরবো না৷’ সেদিন একথা বলে দলত্যাগের জল্পনা নিজেই আরও উস্কে দিয়েছিলেন৷ দলের মধ্যেও তাঁকে নিয়ে ফের জল্পনা শুরু হয়েছে৷ এমনকি তার কাছে জানতে চাওয়া হবে কেন তিনি এমন কথা বলেছেন৷

সব্যসাচী দত্তকে নিয়ে প্রথম জল্পনা শুরু হয়েছিল যেদিন তার বাড়িতে গিয়ে লুচি-আলুর দম খেয়েছিলেন মুকুল রায়। দফায় দফায় বৈঠকের পর সেই সময় ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, সব্যসাচী দলেই থাকছেন। সব্যসাচী দত্তও সেদিন বলেছিলেন, দলে ছিলাম,আছি, থাকব৷ কিন্তু তারপরের ঘটনা পরম্মপরায় বলছে অন্য কথা৷ তিনি কী তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাচ্ছেন? কোনটাই পরিস্কার নয়৷ বিতর্কিত সব্যসাচী কী করবেন তা এখন সময়ের অপেক্ষা৷