প্রদ্যুত দাস, জলপাইগুড়ি: আগামী ১১ এপ্রিল থেকে ১২ মে পর্যন্ত সাত দফায় সারা দেশ জুড়ে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি তুঙ্গে৷ জলপাইগুড়িতে ১৮ এপ্রিল ভোট৷ দৃষ্টিহীন, শ্রবণ, অস্থি-সংক্রান্ত ও মানসিক অসুস্থ ও একাধিক প্রতিবন্ধকতা যুক্তরা জেলায় প্রায় প্রতিটি বুথে রয়েছে।

তাদের জন্য বিশেষ ও সুষ্ঠুভাবে ভোটের ব্যবস্থা করা চ্যালেঞ্জ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ সেই বিশেষ ভোটের প্রশিক্ষণ চলছে জেলায় জেলায়৷ চলছে আলোচনা সভা৷ নির্বাচন কমিশন প্রতিবন্ধী ভোটারদের সুষ্ঠুভাবে পরিবেশে বান্ধবে তাদের ভোট দেওয়ার অধিকার প্রয়োগ করাতে চাইছে৷ সেই নিয়েই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়৷ দেওয়া হয় ট্রেনিং৷

শুধু প্রতিবন্ধীদের কথা ভাবছে না নির্বাচন কমিশন৷ ভাবছেন তাঁদের বাবা মা-দের কথাও৷ তাই ভোট দানের প্রতি প্রতিবন্ধীদের আকর্ষণ বাড়াতে জলপাইগুড়ি ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন পরিচালিত প্রতিবন্ধী স্কুলে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে একটি অঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়৷ যার বিষয়বস্তু ছিল ভোট দান৷

নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে আসা জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের পৌলমী মুখোপাধ্যায় বলেন, এবার নির্বাচন কমিশনের বার্তা রয়েছে কোনও ভোটার যেন ভোটদান প্রক্রিয়া থেকে বাদ না যায়। এজন্য দেশের সর্বত্রই নানাভাবে জনসচেতনতা প্রচার চালানো হচ্ছে। এমনকি কোনও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিও যাতে ভোটদানে বিরত না থাকেন সেদিকে লক্ষ্য রেখেই বিশেষ প্রচার চলছে। সকলেই যাতে ভোটদানে সামিল হন সেই বার্তাই ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে মানুষের মধ্যে। নির্বাচন কমিশনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্কুলের প্রিন্সিপাল স্বাতী মিত্র মজুমদার।