কলকাতা: করোনা মানুষের স্বাভাবিক জীবন যাপনকে ওলট পালট করে দিয়েছে। সারা বিশ্বের মানুষের কাছে এখন একটাই ত্রাস- করোনা ভাইরাস। ভারতেও এই করোনা ভাইরাসের জেরে সবকিছু স্তব্ধ হয়েছে। আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশ লক ডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফলে বিনোদন জগৎ স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে। বন্ধ হয়েছে ছবির শ্যুটিং। ঘরবন্দি হয়েছেন তারকারা। কিন্তু এর মধ্যে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন জুনিয়র টেকনিশিয়ানরা। বিনোদন দুনিয়ায় তাঁরাই সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে মনে করা হচ্ছে। তাই তাঁদের কথা মাথায় রেখেই কিছু পদক্ষেপ করেছে প্রোডিউসার গিল্ড ইন্ডিয়া। তবে শুধু বলিউড নয়, টলি পাড়াতেও জুনিয়র টেকনিশিয়ানদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন পরিচালক থেকে প্রযোজকরা।

করোনার মোকাবিলা করতে জুনিয়র টেকনিশিয়ানদের জন্য একটি ত্রাণ তহবিল তৈরি করা হয়েছে। এই পদক্ষেপ করেছেন মূলত অপর্ণা সেন, গৌতম ঘোষ, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, অরিন্দম শীল সহ আরও অনেকে। এছাড়াও এই তহবিলে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন সৌরসেনী মৈত্র, ঋতাভরী চক্রবর্তী, অর্জুন চক্রবর্তী, গৌরব চক্রবর্তী এবং আরও অনেকে। এই তহবিলে মোট ৩ লক্ষ টাকা জমা হবে বলে জানা গিয়েছে। এর মঝ্যে গৌতম ঘোষ দিয়েছেন ১০ হাজার টাকা। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ও এই তহবিলে টাকা দিয়েছেন। যাতে আরও টাকা জমা দেওয়া হয় তার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় আর্জি জানিয়েছেন পরিচালক, প্রযোজক ও অভিনেতারা।

প্রসঙ্গত এই মুহূর্তে তারকারা ঘরবন্দি। যে যার মতো করে সময় কাটাচ্ছেন। অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও প্রকাশ করে ভক্তদের সচেতন করছেন। যেমন অভিনেতা-সঞ্চালক মীর জানিয়েছেন এই পরিস্থিতিতে তিনি বাড়ির পরিচারিকাকে ছুটি দিয়েছেন। নিজের কাজ নিজেই করছেন। বাসনও মাজছেন নিজেই। কিন্তু বাসন মাজার সময়ে জলের অপচয় না হয় সেই দিকেও তিনি নজর রাখতে বলেছেন।

অন্যদিকে বাড়ির ব্যালকনিতে চা বানাতে দেখা গেল অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তীকে। তবে এ যে সে চা নয়! ফলোয়ারদের জন্য বানিয়ে দেখালেন হার্বাল টি। এই চায়ের প্রতিটি উপকরণই স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। সেই হার্বাল টি-এর রেসিপিও শেয়ার করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৪৯। মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের। বাংলায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০। মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা