কলকাতা ২৪x৭: আপনি কি আজকের ক্যালেন্ডার দেখেছেন? দেখা উচিৎ কিন্তু। কারণ এমন দিন বারবার আসে না। বহু বছর পরে বলা যায় কয়েকশো বছর পরে এমন তারিখ আসে।

২১ জানুয়ারি ২০২১, এই তারিখ এমনই একটা বিশেষ দিন। আজ একবিংশ শতাব্দীর একবিংশ বছরের ২১ তম দিন। এমন দিন আসবে আরও ১০১ বছর পর। স্বাভাবিক ভাবে আজকের কেউ তখন বেঁচে নাও থাকতে পারেন।

আরও পড়ুন – কমল দাম! এবার ১০ হাজারের মধ্যেই পাওয়া যাবে জনপ্রিয় এই সংস্থার ফোন

নেটিজেনরা এই দিন ঘিরে রীতিমতো উত্তেজিত। তাঁরা যে এমন একটা দিনের সাক্ষী থাকছেন, তাতে তাঁরা নিজেরা শিহরিত হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, এবার চারিদিকে করোনার দাপটে দিনক্ষণ গুলিয়ে গেছে সকলের। কিন্তু একবিংশ শতাব্দীর একবিংশ বছরের ২১ তম দিন ঘিরে নেটিজেনরা উৎসাহ দেখাচ্ছে। তারিখটির বিশেষত্ব সম্পর্কে তাঁরা দারুণ উৎসাহিত।

দেশের গৃহায়ণ ও নগর বিষয়ক মন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরীও এমন নেটিজেনদের মধ্যে একজন যারা এই বিশেষ দিন নিয়ে অত্যন্ত উৎসাহ দেখিয়েছেন। টুইটারেই এই বিশেষ দিন ঘিরে বেশি সাড়া পড়েছে। মন্ত্রী লিখেছেন, “এমন এক দিন যা একশো বছরে একবার আসে! আজ একবিংশ শতাব্দীর একবিংশ বছরের ২১ তম দিন। এটি আপনার জীবনে এমন একটা দিন যা বিশেষ।”

আরও পড়ুন – ভয়াবহ ভূমিকম্প! রিখটার স্কেলে মাত্রা ৭

ঠিক যখন রাত ৯ টা ২১ বাজবে, তখন যে সংখ্যাটা আসবে তা হল ২১:২১ – ২১/১/২১। নিঃসন্দেহে এটি একটি বিশেষ নম্বর। তবে এই বিশেষ দিন একবার আসলেও, এমন ধরনের দিন আরও নিঃসন্দেহে আসে।

যেমন ২০২০ তে বিশেষ দিন ছিল ০২/০২/২০২০ অথবা ২০/০২/২০২০ বা ১০/১০/২০২০। অনেকেই কুসংস্কার বশত এই দিনগুলিকে লাকি বলে মনে করেন। এদিন অনেকে নানান শুভ কাজ করেন, কেউ আবার লটারির টিকিট কাটেন। সব মিলিয়ে বিশেষ দিনে উৎসাহ থাকে সবারই।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।