স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বুধবার শেষ হল ২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। এদিন ছিল একাদশতম দিন। ১১ দিনের পরীক্ষা মিলিয়ে এ বছরের উচ্চমাধ্যমিকে মোট ১৮ টি মোবাইল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীরই পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছিল।

কিন্তু কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার পরও পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্রছাত্রীদের মোবাইল নিয়ে ঢোকার অভিযোগ আসায় সাধারণ মানুষের প্রশ্নের মুখে পরেছিল সংসদ। এই সমস্ত পরীক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন বাতিল করা হবে কিনা সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে সংসদের মিস কন্ডাক্ট ও ম্যাল প্রাকটিস এনকয়ারি কমিটি। শেষ দিনের পরীক্ষার পর বিষয়টি স্পষ্ট করল পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

সংসদের তরফে জানানো হয়েছে, শেষ দিনের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাও নির্বিঘ্নে ও শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। কোনও অঞ্চল থেকেই কোন অভিযোগ আসেনি। গত মাসের ২৬ তারিখ থেকে শুরু হয়ে পরীক্ষা শেষ হল ১৩মার্চ। পরীক্ষার সঙ্গে যারা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যুক্ত ছিলেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজেদের দায়িত্ব পালন করেছেন। রাজ্য প্রশাসন, স্বরাষ্ট্র দফতর, পুলিশ প্রশাসন, স্কুল শিক্ষা দফতর, জেলা প্রশাসন সহ রাজ্য সরকারের প্রত্যেকটি দফতরই নিজেদের দায়িত্বও সঠিক ভাবে পালন করেছে। জেলা উপদেষ্টা মণ্ডলীর সকল সদস্য, শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষাকর্মী সহ সকলেই নিজের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেছেন বলেই পরীক্ষা এতো নির্বিঘ্নে সম্পন্ন হয়েছে। পরীক্ষার দিনগুলিতে অসুস্থ পরীক্ষার্থী, পথ দুর্ঘটনাগ্রস্থ পরীক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ পরীক্ষা কেন্দ্রের ব্যবস্থা ছিলও। জানিয়েছে সংসদ।

এ বছরের মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৮,১‌২৪৩ জন। ছাত্রদের থেকে এ বছর ছাত্রী সংখ্যাই ছিল বেশী। রাজ্য জুড়ে ২১১৭ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষা হয়েছে। এগুলির মধ্যে ৬ টি জেলার ২৫০ টি কেন্দ্রকে স্পর্শকাতর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছিল।