বার্সেলোনা: ‘স্বাধীনতা’য় অনড় কাতালোনিয়া ৷ ‘বিচ্ছিন্নতাবাদ’ রুখতে অটল স্পেন সরকার৷ যুযুধান দু’পক্ষের উত্তেজনা তুঙ্গে৷ বিবিসি জানাচ্ছে, স্বাধীনতা ঘোষণাকে কেন্দ্র করে স্পেনের কাতালোনিয়া অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়ছেই।

ইতিমধ্যে কাতালান আঞ্চলিক সরকার ভেঙে দিয়েছে স্পেন সরকার৷ যে কোনও মুহূর্তে গ্রেফতার করা হতে পারে সেখানকার প্রধান কার্লস পুজদেমনকে৷ স্বাধীনতার দাবিতে তিনি গণতান্ত্রিক প্রতিরোধের ডাক দিয়েছেন৷ কাতালোনিয়াকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে মরিয়া স্পেন৷ শনিবারেই এই প্রদেশের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে মাদ্রিদ। সেখানে ক্ষমতায় বসানো হয়েছে স্পেনের উপপ্রধানমন্ত্রী সোরাইয়া সান্তামারিয়াকে।

 পড়ুন:কাতালোনিয়া থেকে কলকাতা হারানোর জ্বালায় জর্জরিত স্পেন

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয় আগেই জানিয়েছিলেন, কোনও অবস্থায় কাতালোনিয়ার স্বাধীনতা মেনে নেবে সরকার৷ জাতীয় আইনসভায় তাঁর ভাষণের পরেই স্বাধীনতা ঘোষণা করে কাতালোনিয়া সরকার৷ প্রাদেশিক আইনসভায় কাতালান সরকারের প্রধান কার্লস পুজদেমন স্বাধীনতার ডাক দিতেই স্পেন জুড়ে শুরু হয় তুমুল অস্থিরতা৷

সংবাদ সংস্থা এএফপি, রয়টার্স, এপি জানাচ্ছে- জাতীয় আইনসভায় কাতালান স্বাধীনতাপন্থীদের ক্ষমতা কম৷ তাই সরকারপক্ষের তোলা কাতালান স্বাধীনতা বিরোধী অবস্থান জয়ী হয়৷

শুধু স্পেন সরকার নয়, কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার দাবি মেনে নিতে নারাজ আন্তর্জাতিক মহল৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন সহ একাধিক দেশ কাতালোনিয়াকে স্বীকৃতি দিতে রাজি হয়নি৷
তবে নিজেদের অবস্থানে অনড় কাতালানরা৷ সেখানকার রাজধানী শহর বার্সেলোনার রাস্তায় শুরু হয়েছে ব্যারিকেড৷ অন্যদিকে দেশবিভাজন রুখতে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে পথে নেমেছেন জনগণ৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।