মাদ্রিদঃ বিশ্বজুড়ে ক্রমে বাড়ছে করোনা ভাইরসে আক্রান্তের সংখ্যা। সব থেকে ক্ষতিগ্রস্ত ইতালি, ফ্রান্স, জার্মানি স্পেন সহ অন্যান্য একাধিক দেশ। ইতিমধ্যে সে দেশের প্রশাসনের তরফ থেকে নেওয়া হয়েছে একাধিক পদক্ষেপ। তবে তা সত্ত্বেও আটকানো যাচ্ছে না মৃত্যু মিছিল। আগেই করনার থাবা গ্রাস করেছিল স্পেনের রাজপরিবারকে। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিলেন স্পেনের রাজকন্যা মারিয়া তেরেসা।

আর সে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ইতিমধ্যে ১০ হাজার ছুয়েছে। যা যথেষ্ট ভয়াবহ। ইতিমধ্যে স্পেনেও প্রবলভাবে ছড়িয়ে পরেছে করোনা ভাইরাস। যার জেরে সে দেশের প্রশাসনের তরফে জারি করা হয়েছে সতর্কতা। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ এক রাতের মধ্যে সে দেশে করোনা ভাইরসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে দশ হাজারে। যার জেরে আতঙ্কিত সেদেশের সাধারণ মানুষ। এমনটাই জানিয়েছেন সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানা গিয়েছে বুধবার থেকে সে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১০২৩৮। তবে আনুপাতিক হারে দৈনিক ব্রিদ্ধির হার গত কয়েকদিনে যথেষ্ট কমেছে। যা দেখে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে সে দেশের চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীরা। এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরসে আক্রান্ত হয়ে সে দেশের মৃত্যুর সংখ্যা পৌঁছেছে দশ হাজার তিনে। অর্থাৎ আগের থেকে দশ শতাংশ বেড়েছে মৃত্যু।

তবে শেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে এখনও পর্যন্ত ছয় হাজার জন সে দেশে আই সি ইউতে ছিলেন। ইতিমধ্যে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পরেছে এই ভাইরাস । ভারতেও আক্রান্তের সংখ্যা দু হাজারের কাছে। পাশপাশি মারা গিয়েছেন অনেকেই। তবে একাধিক দেশ আপ্রন চেষ্টা করে চলেছে এই ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিস্কারের। যা থেকে কিছুটা হলেও আসার আলো দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও