স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ভাইফোঁটার পর আবারও বান্ধবীকে নিয়ে ‘দিদি’র কাছে ‘কানন’। বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন তিনি।

শুক্রবার থেকে শুরু হল ২৫ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে চলচ্চিত্র উৎসবের শুভ সূচনা করলেন অভিনেত্রী রাখি গুলজার। মঞ্চে উপস্থিত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম, শাহরুখ খান, মহেশ ভাট, মার্কিন অভিনেত্রী অ্যান্ডি ম্যাকডোয়েল সহ টলিউডের একঝাঁক তারকা। কিন্তু তাঁদের মধ্যেই এদিন দর্শকাসনে বসে নজর কাড়লেন শোভন-বৈশাখী।

কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল সরকারি অনুষ্ঠান, হলেও অনুষ্ঠানের মূল উদ্যোক্তার ভূমিকায় বরাবরই দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। সে কারণে কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের মঞ্চে শোভন-বৈশাখীর উপস্থিতি নিঃসন্দেহে তাদের তৃণমূলে যোগদানের জল্পনা আরও বাড়ালো বলে মত রাজনীতির কারবারিদের একাংশের।

১৪ অগাস্ট বিজেপিতে যোগ দেন শোভন-বৈশাখী।বিজেপিতে যোগ দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু বিজেপির সঙ্গে তাঁদের সংসার সুখের হয়নি। অল্পদিনের মধ্যেই বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের উপর অসন্তোষ প্রকাশ করেন শোভন-বৈশাখী। বিজেপি ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথাও জানান এই যুগল।

খাতায়-কলমে বিজেপিতে থাকা সত্ত্বেও ভাইফোঁটায় বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র। কিন্তু গতকাল বৃহস্পতিবার বিধায়কদের সঙ্গে মমতার বৈঠকে তাঁকে দেখা যায়নি। আজ অর্থাৎ শুক্রবার আবার অন্য ছবি। সরকারি আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে এ দিন আবার চর্চায় উঠে এলেন শোভন।

ভাইফোঁটার পর থেকে যেভাবে তৃণমূলের সঙ্গে শোভন-বৈশাখীর নৈকট্য সামনে আসছে, তাতে তাঁদের তৃণমূলে ‘ঘর ওয়াপসি’ স্রেফ সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।