মুম্বই: অবশেষে মাদক মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পরে জামিন পেলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর ভাই সৌভিক চক্রবর্তী। ৩ মাস আগে মাধুর্য থাকায় তাকে গ্রেফতার করেছিল এনসিবি। অবশেষে আজ বুধবার তার জামিন মঞ্জুর করল মাদক সংক্রান্ত বিশেষ আদালত।

এর মৃত্যুর তদন্ত উঠেছিল সিবিআইয়ের হাতে। পাশাপাশি মাদক যায় ঘটনার তদন্ত করছিল নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। সেই মামলায় যোগসাজশ থাকার ফলেই গ্রেফতার হয়েছিলেন সৌভিক। এছাড়াও রিয়া চক্রবর্তী এবং সুশান্তের বাড়ির প্রাক্তন ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরণ্ডা কেউ গ্রেফতার করা হয়েছিল। সৌভিকের গ্রেফতারের দিন কয়েক পরেই গ্রেফতার করা হয়েছিল রিয়াকে।

বেশ কয়েকবার জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে গেলেও অবশেষে প্রায় একমাস বাইকুল্লা জেলে কাটানোর পর ৭ অক্টোবর ছাড়া পান রিয়া চক্রবর্তী। বোম্বে হাইকোর্ট তার জামিন মঞ্জুর করেছিল। কিন্তু সেই সময় খারিজ করে দেওয়া হয় সৌভিকের জামিনের আবেদন।

প্রসঙ্গত ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের দেহ। এই ঘটনা নিয়ে তুমুল আলোড়ন শুরু হয়। প্রথমে আত্মহত্যা বলে ধরে নেওয়া হলেও পরে সুশান্তের পরিবার দাবি করে তাকে খুন করা হয়েছে। অবশেষে ঘটনার তদন্তে সিবিআই এর হাতে। এরপরেই মাদক পাওয়া গেলে গ্রেফতার হন রিয়া ও তার ভাই সৌভিক।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।